ফিরে যাওয়ার ভয়

শূন্যরেখার রোহিঙ্গারা পালিয়ে যাচ্ছে

নিজস্ব প্রতিনিধি, উখিয়া

মিয়ানমারে ফিরে যাওয়ার ভয়ে পালাচ্ছে শূন্যরেখায় অবস’ানরত রোহিঙ্গারা। বুধবার সকালে শূন্যরেখা ঘুরে ক্যাম্প নেতারা এ তথ্য নিশ্চিত করেন।
মঙ্গলবার বাংলাদেশ-মিয়ানমার প্রত্যাবাসন সম্পর্কিত যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপের প্রতিনিধিদল ঘুমধুমের তুমব্রু কোনারপাড়া শূন্যরেখায় অবসি’ত রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করে তাদেরকে মিয়ানমারে নিয়ে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে। পরে ফিরে যাওয়ার ভয়ে ওই রাতেই ৮ সদস্যের পরিবার মোহাম্মদ উল্লাহ, ৮ সদস্যের আরেক
পরিবার আবুল আলম, ৬ ছেলে/মেয়ে নিয়ে মৌলভী হানিফ, ৬ সদস্যের পরিবার জাহেদ আলম ও ৪ ছেলে/মেয়ে নিয়ে মোবারক শূন্যরেখা ছেড়ে পালিয়েছে।
বুধবার সকালে শূন্যরেখা ঘুরে ক্যাম্প নেতা মৌলভী আরিফ (৩৮) ও নুরুল আমিন (৩৪) জানান, তারা বাংলাদেশেও যেতে পারছে না, আবার মিয়ানমারেও ফিরতে পারছে না। উভয় সংকটে পড়ে তাদের সেখানে মানবেতর দিনযাপন করতে হচ্ছে। তারা প্রায় ৬ হাজার রোহিঙ্গার মধ্যে ২ হাজারের মতো রোহিঙ্গা বস্তি ছেড়ে পালিয়ে গেছে। তারা কোথায় গেছে সে ব্যাপারে কেউ নিশ্চিত নয়।
বস্তির নেতা ওবাইদুল হক (৩৫) জানান, মঙ্গলবার বাংলাদেশ-মিয়ানমারের যৌথ প্রতিনিধিদল তাদের সাথে শূন্যরেখায় এসে কথা বলেছে। এবং মিয়ানমারে ফিরে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে তাদেরকে পরিবার ভিত্তিক তালিকা প্রণয়নের নির্দেশ দিয়েছে। যার ফলে বস্তির রোহিঙ্গাদের মধ্যে দেখা দিয়েছে ভয়ভীতি। রোহিঙ্গাদের দাবি যেখানে ১০ লাখের অধিক রোহিঙ্গা নাগরিক বিভিন্ন ক্যাম্পে রয়ে গেছে সেখানে শূন্যরেখায় আশ্রিত রোহিঙ্গাদের আগে ফিরে নেওয়ার ঘটনাটি তারা মানতে পারছেন না।
কক্সবাজার ৩৪ বিজিবি’র উপ-অধিনায়ক মেজর ইকবাল আহমেদ জানান, ‘শূন্যরেখায় প্রায় ৬ হাজার রোহিঙ্গা আশ্রয় নিয়েছিল। এ যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপ পরিদর্শনের পর তাদের ভয়ভীতির সঞ্চার হয়েছে। যে কারণে বিচ্ছিন্নভাবে এক দুই পরিবার করে পালিয়ে যাওয়ার ব্যাপারটি শুনেছি। তবে তারা যাতে শূন্যরেখা ত্যাগ করতে না পারে সে ব্যাপারে সতর্ক থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।’