শীত কাহিনি

দীপক বড়ুয়া

শীতের পিঠে শিশিরকতা, শীতের পেটেও তাই

দু’ হাতে ও দু’টি পায়ে শিশির  শুধু ঝরে

দুই কান আর নরোম গালে শীতল গন্ধ পাই

যেদিক ছুটি  চতুর্দিকে শীতকামড়ে ধরে!

শীতকুয়াশা শীতবিছানায় হাঁটে ঘুমায় একা

সবার রূপে শীতের আঁচড় মলিন সবার মুখ

সন্ধ্যা পরে কাউকে এখন যায় না কভু দেখা

সবকিছুতে শুইয়ে আছে কনকন শীত দুখ!

কী সকালে দুপুর সাঁঝে, শীতের কাপড় গায়ে

দৌঁড়ছুট নেই পুকুরমাছের সব্বাই নিশ্চুপ

চাষা-মাঝির রাখালিয়ার  হইচই নেই গাঁয়ে

গরম্নর বাছুর, কোমল শিশুর ঝলমলে নেই রূপ!

শীতের ছোঁয়ায় দগ্ধ সবই ফুল পাখিরা সব

সবজি- ফলও শীতকাতুরে  থির

শহর গলি ফুটপাতে ইস্‌, নেই কোনও উৎসব

লাইটপোস্টের ড়্গীণ আলোয় পিচঢালা পথ নিবিড়!

শীতের হাওয়া ঠান্ডাশীতল বরফ যখন সাজে

নিয়ম ভাঙে প্রকৃতিরও, বলে না সে কিছু

ছন্দ হারায় প্রতিদিনের নিত্যি সকল কাজে

ছুটছে  সবাই  শাসনভয়ে শীতের পিছুপিছু!