মরিচ্যাপালং উচ্চ বিদ্যালয়

শিক্ষক নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিনিধি, উখিয়া

উখিয়ার ঐতিহ্যবাহি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান মরিচ্যাপালং উচ্চ বিদ্যালয়ে সহকারি গ্রন্থগারিক-শিক্ষক নিয়োগ কার্যক্রমে ব্যাপক অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতির অভিযোগ উঠেছে। পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী প্রার্থীদের লিখিত পরীক্ষা গ্রহণ করা হলেও মৌখিক পরীক্ষা না নিয়ে গোপনে শিক্ষক নিয়োগের ঘটনা নিয়ে প্রার্থীদের মধ্যে দেখা দিয়েছে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা।
পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী প্রার্থী উখিয়ার আবুল হোসেন, শাহিনা আকতার, মরিচ্যার আব্দুল খালেক, বিপ্লব কুমার পাল ও রামুর ফরিদা আকতার অভিযোগ করে জানান, স্থানীয় পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে গত ১০ এপ্রিল কক্সবাজার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে সকাল ১০ টায় লিখিত পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরবর্তিতে মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা থাকলেও বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতির অনুপস্থিতির অজুহাতে মৌখিক পরীক্ষা স্থগিত করে দেন নিয়োগ কমিটি। প্রার্থীরা আরো জানান, নিয়োগ কমিটি বর্তমানে একজন প্রার্থীকে গোপনে নিয়োগ দেওয়ার জন্য যাবতীয় প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছে। যা নিয়ে অন্যান্য প্রার্থীরা হতাশ হয়ে পড়েছে। এ প্রসঙ্গে জানতে চাওয়া হলে নিয়োগ কমিটির সদস্য কক্সবাজার সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আবু ইউসুফ জানান, তিনি পরীক্ষা বোর্ডে জেলা প্রশাসকের প্রতিনিধি হিসাবে থাকলেও মূল দায়িত্বে রয়েছে মরিচ্যাপালং উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও পরিচালনা কমিটির সভাপতি। নিয়োগ দেওয়া না দেওয়া তাদের ওপর নির্ভর করছে। বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মো. ইসলাম মেম্বার গোপনে শিক্ষক নিয়োগ দেওয়ার ঘটনাটি অস্বীকার করে বলেন, পরবর্তি যেকোনো সময়ে পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে পুনঃশিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করা হবে।