শাহাদাতসহ বিএনপির চার নেতা রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক

পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগে দ্রুত বিচার আইন ও সন্ত্রাস দমন আইনে পৃথক দুই মামলায় নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেনসহ বিএনপির চার নেতাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুইদিন করে চারদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। গ্রেফতার আরও ৮ নেতাকর্মীকে কারাফটকে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দিয়েছেন আদালত। এছাড়া আদালত গ্রেফতার ৭ নারী নেতাকর্মীর রিমান্ড নামঞ্জুর করেন।
গতকাল অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম শাহাদাত হোসেন ভূঁইয়ার আদালত শুনানি শেষে রিমান্ডে নেওয়ার এ আদেশ দেন। শুনানির সময় শাহাদাতসহ বিএনপির গ্রেফতার নেতাকর্মীরা আদালতে উপসি’ত ছিলেন। গত ৯ ফেব্রুয়ারি শাহাদাতসহ গ্রেফতার ১৯ নেতকর্মীকে ১০ দিন করে রিমান্ড আবেদন করেছিলেন কোতয়ালী থানা পুলিশ।
নগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (প্রসিকিউশন) নির্মলেন্দু বিকাশ চক্রবর্তী সুপ্রভাতকে বলেন, শাহাদাতসহ ৪ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দুই মামলায় ৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। একই সাথে আটজনকে কারাফটকে জিজ্ঞাসাবাদেরও অনুমতি দেন আদালত।
নির্মলেন্দু বিকাশ চক্রবর্তী আরও বলেন, গ্রেফতার ৭ নারী নেত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দেননি আদালত।
আদালত সূত্রে জানা যায়, দুই মামলায় চারদিন করে যাদের রিমান্ড মঞ্জুর হয়েছে তারা হলেন, ডা. শাহাদাত হোসেন, নগর বিএনপির সহ তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আলমগীর নূর, সহ স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক আরিফুল ইসলাম এবং যুবদল নেতা আব্দুল কাদের জসীম।
গত ৮ ফেব্রুয়ারি দুপুরে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণাকে কেন্দ্র করে নগর বিএনপির কার্যালয় নাসিমন ভবনের সামনে নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়। পরে পুলিশ কার্যালয়ের ভেতরে ঢুকে নগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেনসহ ১৯ জনকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে যায়। গ্রেফতার নেতকর্মীদের মধ্যে ৭ জন নারীনেত্রীও ছিলেন। পরে তাদের বিরুদ্ধে দুটি মামলা দায়ের করা হয়।