শতভাগ বিদ্যুতের আওতায় এলো ১৮৬ উপজেলা

সুপ্রভাত ডেস্ক

এখন পর্যন্ত ১৮৬ উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন করেছে বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড। এরমধ্যে বৃহস্পতিবার ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ১৫টি উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়নের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড জানায়, যে ১৫টি উপজেলা উদ্বোধন করলেন তা হলো, ধামরাই-ঢাকা, নিকলী-কিশোরগঞ্জ, রাউজান-চট্টগ্রাম, পীরগঞ্জ-রংপুর, খোকসা-কুষ্টিয়া, দেবহাটা-সাতক্ষীরা, রূপসা, ফুলতলা ও দিঘলিয়া-খুলনা, বাগাতিপাড়া-নাটোর, বেড়া-পাবনা, বিয়ানীবাজার-সিলেট, চুয়াডাঙ্গা সদর-চুয়াডাঙ্গা, দিনাজপুর সদর ও বিরামপুর-দিনাজপুর। এই ১৫টি উপজেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহ করতে ১৩ হাজার ১০০ দশমিক ০৯ কিলোমিটার লাইন নির্মাণ করা হয়েছে। এই উপজেলাগুলোয় মোট ৭ লাখ ৯৯ হাজার ৫২৭টি সংযোগ দিয়েছে সংস্ত’াটি। এতে ১ হাজার ৮৭৯ কোটি ৬৬ লাখ টাকা ব্যয় হয়েছে বলে জানায় বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড।
এ বিষয়ে আরইবির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মঈন উদ্দিন বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ভিশন-২০২১ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ২০১৮ সালের মধ্যে বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের আওতাভুক্ত ভৌগলিক এলাকায় বিদ্যুৎ সংযোগ-প্রত্যাশী শতভাগ পরিবারের মাঝে বিদ্যুৎ সুবিধা পৌঁছে দিতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের আলোকিত বাংলাদেশ গড়তে ‘শেখ হাসিনার উদ্যোগ-ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ’ এই স্লোগান ধারণ করে আলোর পথে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ।’
বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড জানায়, আরও ১৩৫টি উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন সম্পন্ন হয়েছে, যা উদ্বোধনের অপেক্ষায় আছে। এছাড়া আগামী জুনের মধ্যে আরও ১৩৫টি উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন করা হবে। পল্লী বিদ্যুতায়ন কার্যক্রমের আওতাভুক্ত অবশিষ্ট ১৩৯টি উপজেলাও পর্যায়ক্রমে শতভাগ বিদ্যুতায়ন করা হবে।
প্রসঙ্গত, বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের আওতাধীন উপজেলার সংখ্যা ৪৬০টি। এই বছরের মার্চ মাসে দেশের ৪৬০টি উপজেলায় ৮০টি পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি এলাকায় মোট ৩ লাখ ৮২ হাজার কিলোমিটার লাইন ও ৯ হাজার ৭১০ এমভিএ ক্ষমতা সম্পন্ন ৮৩৪টি বৈদ্যুতিক উপকেন্দ্র নির্মাণ করেছে। এর মাধ্যমে দেশের ৭৫ হাজার ৮৯১টি গ্রাম বিদ্যুতায়ন করা হয়েছে। এরমধ্যে ৩ লাখ ২৫ হাজার সেচ পাম্পসহ বিভিন্ন শ্রেণির ২ কোটি ২২ লক্ষ গ্রাহক বা পরিবারকে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হয়েছে।