রাউজানে পানিচলার পথ ভরাট করে আবাসিক ভবন নির্মাণের উদ্যোগ

নিজস্ব প্রতিনিধি, রাউজান

রাউজান পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের পশ্চিম রাউজান ফতেহ আলী চৌধুরী বাড়ি, হেদু মিয়া চৌধুরী বাড়ি, চৌধুরী বাড়ি, কালু সওদাগর বাড়ি, খাদ্যগুদাম, সুরেশ বিদ্যায়তন, ঢেউয়া পাড়া, বাইন্যা পুকুর, আমির মোহাম্মদ চৌধুরী বাড়ি, কিশোরী বাপের বাড়িসহ পশ্চিম রাউজান এলাকার পাঁচ শতাধিক পরিবারের বসতভিটা ও বাজারের পানি চলাচলের শত বছরের পুরাতন পথ রাউজান সাহেব বিবি সড়কের অতলা নামক স’ান। ওই সড়কের অতলা নামক স’ানে একটি ব্রিজ নির্মাণ করা হয়েছে গত ২০ বছর আগে। বর্ষা মৌসুমে বৃষ্টি হলে পাঁচ শতাধিক পরিবারের বসতঘর ও পাহাড়ি ঢলের পানি সাহেব বিবি সড়কের অতলা ব্রিজের নিচ দিয়ে চলাচল করে।
বর্তমানে হরিশখান পাড়া এলাকার মোজাম্মেল হক খোকন নামে এক ব্যক্তি ব্রিজের নিচে মাটিভরাট করে আবাসিক ভবনের প্লট তৈরি করছে। এলাকার বাসিন্দারা জানান, এতে আগামী বর্ষা মৌসুমে পাঁচ শতাধিক পরিবারের বসতঘর, এলাকার ফসলি জমি, মাছচাষের পুকুর, খাদ্যগুদাম, সুরেশ বিদ্যায়তনসহ এলাকার মানুষের চলাচলের সড়ক পানিতে ডুবে গিয়ে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশংকা রয়েছে।
রাউজান পৌরসভার কাউন্সিলর এডভোকেট দিলিপ কুমার চৌধুরী জানান, অতলা ব্রিজের নিচ দিয়ে মাটি ভরাট করায় বর্ষার মৌসুমে জলবদ্ধতার সৃষ্টি হয়ে এলাকার মানুষের বসতঘর, ফসলি জমি পানিতে ডুবে যাবে। জমি ভরাটকারী মোজাম্মেল হক খোকন জানান, মাটি ভরাট করা জমিটি আমরা সুলতানপুরের জামাল থেকে ক্রয় করেছি।
এটা খতিয়ানভুক্ত জমি। জমির পাশে পানি চলাচলের পথ উম্মুক্ত রাখা হবে। এ ব্যাপারে রাউজান উপজেলা সহকারী কমিশনার-ভূমি জোনায়েদ কবির সোহাগকে ফোন করে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি চট্টগ্রামে জেলা প্রশাসকের কার্যলয়ে সভায় রয়েছি। আমি তদন্ত করে পানি চলাচলের পথে মাটি ভরাটকারীর বিরুদ্ধে ব্যবস’া নেব ।