‘মূল্যবোধের অবক্ষয় রোধে সুস’ধারার সংস্কৃতির বিকাশ জরুরি’

রজভীয়া নূরীয়া ইসলামি সাংস্কৃতিক ফোরাম বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা পীরে তরিকত, খলিফায়ে দরবারে আ’লা আল্লামা মুহাম্মদ আবুল কাশেম নূরী বলেন, আকাশ সভ্যতার সুবাধে পশ্চিমা নগ্ন সংস্কৃতির আগমন ও অনুকরণ প্রিয়তা বাঙালি সমাজ ব্যবস’ায় নেতিবাচক প্রভাব বিস্তার করছে। ইসলামি তাহজীব তমুদ্দন ও দেশীয় সংস্কৃতির মেলবন্ধনে চিরায়ত বাঙালি সংস্কৃতির যে সৌন্দর্যবোধ ছিল তা ক্রমশ হ্রাস পাচ্ছে। ফলে সামাজিক মূল্যবোধ, নীতি-নৈতিকতার অবক্ষয় যেমন ঘটছে তেমনি দেশের তরুণ সমাজও বিপথগামী হয়ে ওঠছে। এ অবস’ান থেকে পরিত্রাণ পেতে প্রয়োজন সুস’ধারার সংস্কৃতির বিকাশ। কিন’ সুস’ধারার সংস্কৃতির বিকাশে পৃষ্টপোষকতা নেই বললেও চলে। তিনি মূল্যবোধের অবক্ষয়রোধে সুস’ধারার সংস্কৃতির বিকাশে পৃষ্টপোষকতায় এগিয়ে আসতে সমাজের সম্পন্ন ও দায়িত্বশীল ব্যক্তিদের আহবান জানান। বিজ্ঞপ্তি
গতকাল ১১ জুলাই বুধবার বিকালে অঙিজেনস’ কার্যালয়ে রজভীয়া নূরীয়া ইসলামী সাংস্কৃতিক ফোরামের ঈদ পুনর্মিলনী ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ফোরামের সভাপতি বিশিষ্ট না’ত খাঁ মুহাম্মদ মাছুমুর রশিদ কাদেরীর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক শায়ের মুহাম্মদ নাজিম উদ্দিন কাদেরীর সঞ্চালনায় উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন আনজুমানে রজভীয়া নূরীয়া ট্রাস্টের সেক্রেটারি জেনারেল আল্লামা আবুল হাসান মুহাম্মদ ওমাইর রজভী। প্রধান বক্তা ছিলেন আন্জুমানে রজভীয়া নূরীয়া বাংলাদের কেন্দ্রীয় মহাসচিব মাস্টার মুহাম্মদ আবুল হোসেন। সংবর্ধেয় অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামি ছাত্রসেনা কেন্দ্রীয় সভাপতি ছাত্রনেতা মুহাম্মদ এইচ এম শহীদুল্লাহ। বিশেষ বক্তা ছিলেন ফোরামের সাবেক সভাপতি শায়ের মাওলানা এনামুল হক এনাম। সভাপতির বক্তব্যে মাছুমুর রশিদ কাদেরী বলেন, তরুণদের ইসলামী মূল্যবোধে উদ্বুদ্ধ করতে আল্লামা নূরীর অনুপ্রেরণায় দেশব্যাপী ইসলামী সংস্কৃতির প্রচার-প্রসারে আমরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। ফোরামের নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপসি’ত ছিলেন শায়ের ছালামত রেযা, শায়ের আবু ছালেহ মুহাম্মদ সাফওয়ান নূরী, ক্বারী গিয়াস উদ্দিন, শায়ের এয়ার মুহাম্মদ, শায়ের জাহেদুল আলম, শায়ের ইকবাল হোসাইন, শায়ের ওসমান গণী প্রমুখ।