মালয়েশিয়ায় পাচার কক্সবাজারে আরও ১৭ রোহিঙ্গা আটক

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার

প্রায় ৩/৪বছর মালয়েশিয়ায় মানবপাচার বন্ধ থাকলেও ফের মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে মানবপাচারকারীরা। সম্প্রতি এর তৎপরতা দেখা দিয়েছে কক্সবাজারের উপকূলীয় এলাকাসহ সীমানেত্মর বিভিন্ন পয়েন্ট দিয়ে। গত এক সপ্তাহে প্রায় শতাধিক রোহিঙ্গা নারী, শিশু পুরম্নষকে পাচারকালে অর্ধশতাধিক দালালসহ আটক করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।
গতকাল শনিবার ভোরে কক্সবাজার শহরের ১ নম্বর ওয়ার্ডের কুতুবদিয়াপাড়ার মোসত্মাইক্যাপাড়া নামক স’ান থেকে মালয়েশিয়াগামী ১৭ রোহিঙ্গাকে আটক করেছে পুলিশ। স’ানীয় সিকান্দরের স্ত্রী রোকসানার ঘরে এসব রোহিঙ্গারা আশ্রয় নিয়েছিলেন। তবে পুলিশের উপসি’তি টের পেয়ে দালালরা পালিয়ে যাওয়ায় তাদের আটক করা সম্ভব হয়নি।
কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি (তদনত্ম) খায়রম্নজ্জামান ও ওসি (অপারেশন) মাইন উদ্দিনের নেতৃত্বে এসআই আরিফ উলস্নাহ এ অভিযান চালানো হয়। গত মঙ্গলবারও একই এলাকা থেকে নারীসহ আরও ৪ জন রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করা হয়েছিল।
স’ানীয় সূত্র জানায়, কুতুবদিয়াপাড়ার চিহ্নিত মানবপাচারকারী একরামুল হক ও আবদুল কাদেরের নেতৃত্বে সাগর পথে মালয়েশিয়ায় মানবপাচার শুরম্ন হয় প্রায় দেড় মাস আগে থেকে। তবে অন্যান্য বছরে টার্গেট বাংলাদেশি হলেও এবারের টার্গেট শুধু রোহিঙ্গা।
শুক্রবার কক্সবাজার শহরের সমিতিপাড়া এলাকার হোসনে আরা বেগমের বাড়িতে মালয়েশিয়ায় পাচারের উদ্দেশ্যে ১৭ জন রোহিঙ্গাকে প্রথমে জড়ো করা হয়। পরে সুযোগ বুঝে মোসত্মাকপাড়া এলাকায় রোকসানার বাসায় নিয়ে যাওয়া হয় তাদের। খবরটি জানাজানি হলে ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সভাপতি মো. আরমান খানের নেতৃত্বে ওই বাড়িটি ঘিরে রেখে থানা প্রশাসনকে খবর দেয় স’ানীয়রা। পুলিশ এসে ওই ১৭ রোহিঙ্গাকে উদ্ধার করে।