মার্কিন পার্লামেন্টে আসছে ড্রিমারদের সুরক্ষায় দুই বিল

সুপ্রভাত বহির্বিশ্ব ডেস্ক

যুক্তরাষ্ট্রের অবৈধ ‘ড্রিমারদের’ সুরক্ষার জন্য আগামী সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভে দুটি বিল আনতে যাচ্ছেন স্পিকার পল রায়ান। বিষয়টি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে রিপাবলিকানদের মধ্যে নির্বাচনের বছরের মতবিরোধ নিরসনের উদ্যোগ হিসেবে এই বিল আনা হচ্ছে। ব্রিটিশ বার্তা সংস’া রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে। খবর বাংলাট্রিবিউনের।
শৈশবে বাবা-মায়ের সঙ্গে অবৈধভাবে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমানো অভিবাসীদের কাজের অনুমতি দিতে ‘ড্রিমার’ কর্মসূচি ঘোষণা করেছিল ওবামা প্রশাসন। এর আওতায় কয়েক লাখ অবৈধ অভিবাসীকে নিজ দেশে ফেরত পাঠানো থেকে বিরত ছিল হোয়াইট হাউস। তাদের যুক্তরাষ্ট্রে বৈধভাবে কাজের অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। এর মাধ্যমে মূলত তরুণ অনিবন্ধিত অভিবাসীদের সুরক্ষা দিতে চেয়েছিল ওবামা প্রশাসন। এ কর্মসূচির দাফতরিক নাম ‘ডেফারড অ্যাকশন ফর চিলড্রেন অ্যারাইভাল’ (ডিএসিএ)। এ কর্মসূচির সুযোগ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস,পড়াশোনা ও কর্মসংস’ানের সুযোগ পান প্রায় ৭ লাখ তরুণ। এই তরুণদের বলা হয় ‘ড্রিমার’। তবে গত সেপ্টেম্বরে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকল্পটি সমাপ্তির ঘোষণা দেয় ট্রাম্প প্রশাসন। এরপর আদালতের নির্দেশে সরকারের ঘোষণা স’গিত হয়ে যায়। বিষয়টি নিয়ে মামলা লড়ে যাচ্ছে ট্রাম্প প্রশাসন। পল রায়ানের মুখপাত্র আসলি স্ট্রং বলেন, এই উদ্যোগ সীমান্ত নিরাপত্তা ও অভিবাসন সমস্যার সমাধান করবে। বিষয়গুলো নিয়ে মধ্যপন’ী ও রক্ষণশীল রিপাবলিকানদের মধ্যে বিরোধ চলছে। স্ট্রং বিল দুটির বিস্তারিত কিছু জানাননি। আর রিপাবলিকান নিয়ন্ত্রিত হাউসে বিলগুলো পর্যাপ্ত সমর্থন পাবে কিনা সে ব্যাপারেও তিনি কিছু বলেননি।
রিপাবলিকানদের চরম ডানপন’ী গ্রুপের নেতা মার্ক মিয়াদোস মঙ্গলবার রাতে সাংবাদিকদের বলেন, এই বিলগুলোর একটি ড্রিমারদের সাময়িক সুরক্ষা দেবে। ট্রাম্প প্রশাসন যে উদ্যোগটিকে কিছু রিপাবলিকান ও ডেমোক্র্যাটরা সমর্থন করেছিল তাকেই আরও উন্নত করার চেষ্টা করেছেন হাউস জুডিসিয়ারি কমিটির চেয়ারম্যান বব গুডলেট। ওই বিলে বৈধ অভিবাসনের ওপর নতুন করে কঠোর বিধি-নিষেধ আরোপের পাশাপাশি সহায়ক সীমান্ত নিরপত্তাও জোরদার করার কথা বলা হয়েছে।