মানুষের কল্যাণে প্রযুক্তিকে ব্যবহার করতে হবে

বিজ্ঞপ্তি

নগরীর প্রবর্তক মোড়স’ প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি অডিটোরিয়ামে কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ৩৫ তম ব্যাচের নতুন শিক্ষার্থীদের নিয়ে ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল ১২ ফেব্রুয়ারি সকাল ১১ টায় এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন সমাজবিজ্ঞানী ও প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. অনুপম সেন।
সভাপতিত্ব করেন প্রকৌশল অনুষদের ডিন ও কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. তৌফিক সাঈদ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য প্রফেসর ড. অনুপম সেন নবাগত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন, মানুষ জীবনের বিভিন্ন পর্যায়ে বিভিন্ন জায়গায় যায়। যেমন, তোমরা স্কুল ও কলেজে ছিলে, এখন বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশ করেছো, কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে ভর্তি হয়েছো। আমার বিশ্বাস, তোমরা এই বিভাগ থেকে যথাযথ শিক্ষা নিয়ে বেরুতে পারবে। এই বিভাগের শিক্ষকরা তোমাদের জন্য বিজ্ঞানের জগত, প্রযুক্তির জগত উন্মুক্ত করে দেবেন।
প্রধান অতিথি ড. অনুপম সেন আজকের বিশ্বকে বিজ্ঞানের বিশ্ব উল্লেখ করে বলেন, বিজ্ঞানের কল্যাণে সুদূর অতীত থেকে নানা কিছু আবিষ্কার হচ্ছে। বিদ্যুৎ, কম্পিউটার, মোবাইল প্রভৃতি বিজ্ঞানের যুগান্তকারী আবিষ্কার। এসব আবিষ্কার প্রযুক্তির মাধ্যমে মানুষের ঘরে ঘরে পৌঁছে গেছে। এখন কোয়ান্টাম কম্পিউটার আবিষ্কারের পথে বিজ্ঞানীরা।
ড. অনুপম সেন প্রযুক্তিকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ উল্লেখ করে বলেন, প্রযুক্তির মাধ্যমে পৃথিবীকে এগিয়ে নিতে হবে। মানুষের কল্যাণে প্রযুক্তিকে ব্যবহার করতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে, কিছু কিছু প্রযুক্তি মানুষের কল্যাণের জন্য নয়, যেমন, আণবিক বোমা প্রভৃতি। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে এই আণবিক বোমা জাপানের হিরোশিমা ও নাগাসাকি নামক দুইটি শহরকে ধ্বংস করে দিয়েছিল।
অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আকরামুল কবির খান ও তড়িৎ প্রকৌশল বিভাগের চেয়ারম্যান টুটন চন্দ্র মল্লিক।
উপসি’ত ছিলেন কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ফারহানা শিরিণ চৌধুরী, রোকন উদ্দিন ওসমানী, কিংশুক ধর, মিনহাজ হোসাইন ও আশিক কামাল প্রমুখ।