মাটিরাঙার প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতার পরিবারের পাশে যুবনেতা দিদারুল আলম

মাটিরাঙ উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি প্রয়াত পুলকিত তালুকদারের পরিবারকে ব্যক্তিগত তহবিল থেকে অনুদান প্রদান করলেন খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক দিদারুল আলম। তার এ মহানুভবতায় আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন প্রয়াত পুলকিত তালুকদারের স্ত্রী-সন্তানসহ পরিবারের সদস্যরা। তার এ সহযোগিতার ফলে পিতৃহীন আর হঠাৎ অর্থাভাবে থমকে দাঁড়ানো একটি পরিবারের জীবনের চাকা আবারো সচল হবে। উচ্চশিক্ষা লাভের পথ সুগম হবে প্রয়াত পুলকিত তালুকদারের বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজপড়-য়া দুই ছেলে ও এক মেয়ের।
খাগড়াছড়ি জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক মো. জহির উদ্দিন ফিরোজের মাধ্যমে পরিবারটির অসহায়ত্বের কথা জানতে পেরে বৃহস্পতিবার বিকালে প্রয়াত পুলকিত তালুকদারের বলিটিলা পাড়ার বাসায় ছুটে আসেন তিনি। এসময় তিনি তার ব্যাক্তগত তহবিল থেকে প্রয়াত পুলকিত তালুকদারের স্ত্রী প্রিয়রাণী চাকমার হাতে নগদ পঞ্চাশ হাজার টাকা অনুদান হিসেবে তুলে দেন। এসময় খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রনজিত বড়-য়া, মাটিরাঙা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সুবাস চাকমা, সাংগঠনিক সম্পাদক ও পৌর কাউন্সিলর মো. সাইফুল ইসলাম বাবু, খাগড়াছড়ি জেলা যুবলীগ নেতা মো. ফরিদুল ইসলাম, খাগড়াছড়ি জেলা ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক মো. জহির উদ্দিন ফিরোজ, মাটিরাঙা উপজেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মো. জহিরুল ইসলাম খন্দকার, খাগড়াছড়ি জেলা ছাত্রলীগ সহ-সভাপতি মো. ইমাম হোসেন মানিক, মো. মাইনুল ইসলাম, পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. আমির হোসেন রাকিব, উপজেলা ছাত্রলীগ আহবায়ক মোহাম্মদ আলী পউপসি’ত ছিলেন।
তার এ মহানুভবতায় অভিভূত প্রয়াত পুলকিত তালুকদারের বড় ছেলে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়-য়া সৈকত তালুকদার বলেন, আমাদের তিন ভাইবোনের লেখাপড়া যখন বন্ধ হওয়ার পথে, তখন দেবদূতের মতোই তিনি আমাদের পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন। তার সহযোগিতার কারণেই হয়তো আমাদের লেখাপড়ার চাকাটা সচল থাকবে।
খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক দিদারুল আলম বলেন, শুধু রাজনৈতিক কারণেই নয়, মানবিক দায়িত্ব থেকেই আমি তাদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছি। ভবিষ্যতেও এ ধরনের সহযোগিতা অব্যাহত রাখার ঘোষণা দেন তিনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন