মাটিরাঙার ধলিয়া খালে তলিয়ে গেছে সড়ক

চরপাড়াবাসীর ভোগান্তি

নিজস্ব প্রতিনিধি, মাটিরাঙা
মাটিরাঙার চরপাড়ায় ধলিয়া খালে ধসে পড়েছে সড়ক -সুপ্রভাত
মাটিরাঙার চরপাড়ায় ধলিয়া খালে ধসে পড়েছে সড়ক -সুপ্রভাত

টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে ধলিয়া খালের পেটে বিলীন হয়ে গেছে মাটিরাঙা পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ডের চরপাড়ায় যাতায়াতের একমাত্র সড়কটি। এর ফলে যাতায়াত ও যান চলাচলে চরম জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হয়েছে। নদী ভাঙনরোধে আগাম ব্যবস’া না নেয়ায় এ অবস’ার সৃষ্টি বলে দাবি স’ানীয়দের।
সরেজমিন চরপাড়া ঘুরে দেখা গেছে, শনিবার সকালের দিকে স’ানীয় বাসিন্দাসহ রাস্তা ধরে চলাচলকারী মানুষের চোখের সামনেই খালের পেটে চলে যায় পাকা সড়কটি।
নিজেদের চলাচলের একমাত্র সড়কটি বিলীন হওয়ার এ দৃশ্য দেখেও কারো কিছু করার ছিল না। সকলেই তাকিয়ে ছিল অসহায়ের মতো। শুধুমাত্র পাকা সড়ক নয়, সড়কের সাথে সাথে ধলিয়া খালের পেটে চলে গেছে অনেক ফলজ গাছও।
স’ানীয় অধিবাসী ও সড়ক ভাঙনের প্রত্যক্ষদর্শী সুনী ত্রিপুরা জানান, পাহাড়ি ঢলে নেমে আসা পানির তোড়ে চোখের পলকেই বিলীন হয়ে যায় চরপাড়ার সাথে হাজারো মানুষের যোগাযোগের একমাত্র সড়কটি। ভারী বর্ষণ অব্যাহত থাকলে ধলিয়া খালের পাড়ে বসবাসকারী অনেকেরই ঘর-বাড়িও খালের পেটে চলে যেতে পারে।
খবর পেয়ে ভাঙন কবলিত চরপাড়া এলাকা পরিদর্শন করেছেন মাটিরাঙা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বি এম মশিউর রহমান। ভাঙনের ভয়াবহতা দেখে হতাশা প্রকাশ করেন তিনি। তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি জেলা প্রশাসক ও পানি উন্নয়ন বোর্ডসহ ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকেও জানান তিনি।
এসময় মাটিরাঙা থানার অফিসার-ইন-চার্জ মো. সাহাদাত হোসেন টিটো, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা রাজকুমার শীল, মাটিরাঙা পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. হারুনুর রশীদ ফরাজী ও মাটিরাঙা পৌরসভার ৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আলী মিয়া তার সাথে ছিলেন।