হাজারী লেইনে রামঠাকুর উৎসব

মহামানবরা মানুষকে মুক্তির পথ দেখায়

বিজ্ঞপ্তি

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি অ্যান্ড এনিমেল সাইন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. গৌতম বুদ্ধ দাশ বলেছেন, যুগে যুগে মহামানবেরা আসেন ধরিত্রীকে আলোকিত করে অসাম্প্রদায়িক সমাজ বিনির্মাণের জন্য। পরম প্রেমময় শ্রীশ্রী রামঠাকুরও এসেছেন মাটির পৃথিবীকে স্বর্গধামে রূপ দিয়ে মানুষে মানুষে সম্প্রীতির বন্ধন সুদৃঢ় করতে। নগরীর হাজারী লেইনে শ্রীশ্রী ঠাকুর রামচন্দ্র দেব (রামঠাকুর) স্মরণে বার্ষিক মহোৎসবের ধর্মসম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
মঙ্গলপ্রদীপ প্রজ্বালন করে ধর্মসম্মেলনের উদ্বোধন করেন কৈবল্যধামের মোহনত্ম মহারাজ অশোক কুমার চট্টোপাধ্যায়।
কাউন্সিলর জহরলাল হাজারীর সভাপতিত্বে ও পরিষদ সভাপতি রতন আচার্য্যের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি ছিলেন জন্মাষ্টমী পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক বিমল কানিত্ম দে, কৈবল্যধামের সাধারণ সম্পাদক গোপাল দত্ত, মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ ননী গোপাল আচার্য্য। প্রধান বক্তা ছিলেন অধ্যাপক স্বদেশ চক্রবর্তী। এতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন হরিপদ দাশ, মৃদুল কানিত্ম দে, দুলাল নাথ, রম্নমকি সেনগুপ্ত, প্রশানত্ম কুমার পান্ডে, পান্না হাজারী, দিলীপ দাশ, বাপ্পী নন্দী, হারাধন বণিক, তপন দাশ, নিপু শর্মা, প্রিয়ম দে, রনবীর মলিস্নক প্রমুখ।