মনোনয়নপত্র নিলেন বিএসসি লতিফ ও মোসলেম উদ্দিন

নিজস্ব প্রতিবেদক

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলড়্গে গতকাল মঙ্গলবার চট্টগ্রামে ১৮টি মনোনয়নপত্র বিক্রি হয়েছে। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের ৭ জন, বিএনপির ২ জন, ইসলামী আন্দোলনের ৬ জন, স্বতন্ত্র ১ জন, জাকের পার্টির ১ জন ও লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টির (এলডিপি) ১ জন প্রার্থী রয়েছেন। মনোনয়নপত্র নিয়েছেন প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস’ান মন্ত্রী ও চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি নুরম্নল ইসলাম বিএসসি। তিনি দুই আসনের জন্য মনোনয়নপত্র নিয়েছেন। এছাড়া দড়্গিণ জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি মোসলেম উদ্দিন আহমদ ও বিদ্যুৎ-জ্বালানি ও খনিজসম্পদ, নৌ-পরিবহন ও পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক সংসদীয় স’ায়ী কমিটির সদস্য এম এ লতিফও মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন।
গতকাল সন্ধ্যা ৬টার দিকে লাভলেনের নির্বাচন কমিশন অফিসে নির্বাচন অফিসার তনুশ্রী গোস্বামী সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান।
তার দেওয়া তথ্যানুসারে চট্টগ্রাম-৩ সন্দ্বীপ আসনের জন্য জাকের পার্টির মোহাম্মদ নিয়ামুল হোসেন, চট্টগ্রাম-৪ সীতাকু- আসনের জন্য আওয়ামী লীগ প্রার্থী মোসত্মফা কামাল চৌধুরী ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ প্রার্থী শামসুল আলম হাশেম, চট্টগ্রাম-৭ রাঙ্গুনিয়
আসনের জন্য বিএনপি প্রার্থী গিয়াস উদ্দিন কাদের চৌধুরী, চট্টগ্রাম-৮ বোয়ালখালী আসনের জন্য আওয়ামী লীগ প্রার্থী নুরম্নল ইসলাম বিএসসি, মোসলেম উদ্দিন আহমেদ, ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো. ফরিদ খান ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আবদুল মোমিন, চট্টগ্রাম-৯ কোতোয়ালী আসনের জন্য আওয়ামী লীগ প্রার্থী নুরম্নল ইসলাম বিএসসি, শামসুদ্দিন সিদ্দিকি মুন্না শাহ ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মো. শেখ আমজাদ, চট্টগ্রাম-১০ পাহাড়তলী-ডবলমুরিং আসনের জন্য ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ প্রার্থী মো. জান্নাতুল ইসলাম,ম চট্টগ্রাম-১১ বন্দর-পতেঙ্গা আসনের জন্য আওয়ামী লীগ প্রার্থী এম আবদুল লতিফ, কাজী মাহাবুবুল হক চৌধুরী ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ প্রার্থী মো. লোকমান সওদাগর, চট্টগ্রাম-১২ পটিয়া আসনের জন্য বিএনপি প্রার্থী গাজী মো. শাহজাহান ও এলডিপি প্রার্থী এম ইয়াকুব আলী এবং চট্টগ্রাম-১৪ চন্দনাইশ আসনের জন্য ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ প্রার্থী মো. দেলোয়ার হোসেন সাকি গতকাল মঙ্গলবার মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন।
তনুশ্রী গোস্বামী জানান, নতুন প্রজ্ঞাপন অনুসারে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার শেষ দিন ২৮ নভেম্বর, যাচাই-বাছাইয়ের শেষ দিন ২ ডিসেম্বর, প্রত্যাহার ৯ ডিসেম্বর ও নির্বাচন ৩০ ডিসম্বের।
উলেস্নখ্য, গত ৮ নভেম্বর বৃহস্পতিবার রাতে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার। ৯ নভেম্বর শুক্রবার ও ১০ ডিসেম্বর শনিবার ব্যাংক বন্ধ থাকায় প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করতে পারেননি। ১১ নভেম্বর রোববার থেকে প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র সংগ্রহ শুরম্ন করেন। প্রথম দিন রোববার চট্টগ্রামে ১৬টি মনোনয়নপত্র বিক্রি হয়েছে। ১৫ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র নিয়েছেন। সোমবার ২৫টি মনোনয়নপত্র বিক্রি হয়েছে। গত তিনদিনে চট্টগ্রামে মোট ৫৯টি মনোনয়নপত্র বিক্রি হয়েছে এবং মোট ৫৬ জন প্রার্থী সংগ্রহ করেছেন।