ভেনেজুয়েলার ড্রোন হামলার দায় স্বীকার সাবেক পুলিশ কর্মকর্তার

সুপ্রভাত বহির্বিশ্ব ডেস্ক

ভেনেজুয়েলার রাজধানী কারাকাসে একটি সামরিক অনুষ্ঠানে প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোর উপসি’তিতে চালানো ড্রোন হামলার দায় স্বীকার করেছেন দেশটির এক নগরীর সাবেক পুলিশ প্রধান। তাকে হত্যার চেষ্টায় শনিবার ওই ড্রোন হামলা চালানো হয়েছিল বলে দাবি প্রেসিডেন্ট মাদুরোর, খবর বিডিনিউজের।

বার্তা সংস’া রয়টার্সকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সাবেক পুলিশ কর্মকর্তা ও সরকার বিরোধী আন্দোলনকারী সালভাতর লুকেসি জানিয়েছেন, ভেনেজুয়েলায় ‘রেজিসটেন্স’ নামে পরিচিত মাদুরো বিরোধী চরমপনি’গোষ্ঠীর কিছুটা সহযোগিতা নিয়ে তিনি ওই হামলাটির আয়োজন করেছিলেন। ভেনেজুয়েলার স্ট্রিট অ্যাকটিভিস্ট, ছাত্র সংগঠক ও সাবেক সামরিক কর্মকর্তাদের মতো বিভিন্নজনকে নিয়ে ‘রেজিসটেন্স’ গোষ্ঠীটি গড়ে উঠেছে বলে জানিয়েছেন লুকেসি। তেমন একটা সাংগঠনিক কাঠামো না থাকলেও সামপ্রতিক বছরগুলোতে সরকারবিরোধী আন্দোলনের আয়োজন করে এবং পুলিশ ও সৈন্যদের সঙ্গে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়ে গোষ্ঠীটি ভেনেজুয়েলায় পরিচিতি পেয়েছে। কলম্বিয়ার রাজধানী বোগোতায় সাক্ষাৎকারটি দিয়েছেন তিনি। ড্রোন হামলার পেছনে কলম্বিয়া আছে বলে অভিযোগ তুলেছেন মাদুরো, যা অস্বীকার করেছে দেশটি। কারাকাসের কেন্দ্রস’লে চালানো ওই ড্রোন হামলার বিষয়ে লুকেসির এ দাবি স্বাধীনভাবে যাচাই করতে পারেনি রয়টার্স। ওই হামলার সামরিক অনুষ্ঠানস’লে বিস্ফোরক ভর্তি কয়েকটি ড্রোন উড়িয়ে নিয়ে বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। এতে সাত সামরিক কর্মকর্তা আহত হওয়ার পাশাপাশি অনুষ্ঠানস’লে আতংক ছড়িয়ে পড়ে।

এই ঘটনাকে মাদুরোর বিরুদ্ধে চলমান একটি সশস্ত্র আন্দোলনের অংশ বলে দাবি করেছেন লুকেসি। তবে এই অভিযানে তার সুনির্দিষ্ট ভূমিকা কী ছিল, অন্যান্য কারা কারা জড়িত ছিল এসব জানাতে অস্বীকার করেছেন তিনি। জড়িত অন্যান্যদের রক্ষা করতেই তাদের পরিচয় গোপন রাখতে হবে বলে দাবি করেছেন। লুকেসি বলেছেন, ‘আমাদের একটি উদ্দেশ্য আছে এবং এই মূহুর্তে আমরা তা শতভাগ বাস্তবায়ন করতে পারিনি, আমাদের সশস্ত্র সংগ্রাম চলবে।’ এসব বিষয়ে মন্তব্যের জন্য ভেনেজুয়েলার তথ্য মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও অনুরোধে সাড়া দেয়নি তারা, জানিয়েছে রয়টার্স।