ভালোবাসার গল্প লিখে জয়ী

নিজস্ব প্রতিবেদক

ছোটবেলা থেকেই বাবার সান্নিধ্য পাননি শান্তনু। মা ছিলো তার একমাত্র সম্বল। বোনের বিয়ের পর মা ও বোনের সঙ্গে আমেরিকা পাড়ি জমান। চাকরি করার সময় হঠাৎ খবর পান বাবা গুরতর অসুস’। চাকরি ছেড়ে চট্টগ্রামে ছুটে আসেন বাবাকে দেখাশোনার জন্য। ডাক্তাররা দুই মাস সময় বেঁধে দেন। এরপর বাবার চিকিৎসা ও বাবার প্রতি অদম্য ভালবাসা ও সংগ্রামের মতো অসম্ভব কঠিন এক বাস্তবতার ভেতর হাবুডুবু খাওয়ার মতো জীর্ণদশার সূত্রপাত ঘটে শান্তনুর জীবনে। বাবার মুমূর্ষু জীবনের সবকিছু পরম মমতায় কাঁধে তুলে নেন। ভালো কিছুর প্রত্যাশায় পথে পথে ঘুরেছেন। সবশেষে বাবার সুস’তার হাসিটাই তার কাছে পরম পাওয়া।
শান্তনু নাথের লেখা শিরোনামহীন এই গল্প জিতে নিয়েছে রেডিসন ব্লু চিটাগাং বে ভিউ আয়োজিত ভালোবাসার গল্প লেখা প্রতিযোগিতায় প্রথম স’ান।
১২০০ প্রতিযোগীকে পেছনে ফেলে হোটেল রেডিসন ব্লু’র ১৪ ফেব্রুয়ারির বিশেষ আয়োজনে প্রথম হয়েছেন শান’নু নাথ। গতকাল মঙ্গলবার প্রতিযোগিতার ফলাফল জানানো হয়।
দ্বিতীয় হয়েছে জাহানারা আকতার সানজির লেখা ‘লাভস্টোরি অব সানজি অ্যান্ড ফয়সাল’ গল্পটি। সানজি ও ফয়সালের দেখা একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে ঝগড়ার মধ্য দিয়ে। প্রথম প্রস্তাবেই রাজি হয়ে যাওয়ায় প্রায় বসন্তের মতোই ছিল সানজি ফয়সালের ২০০৮ থেকে ১২ সাল পর্যন্ত। সম্পর্কে আত্মীয় হওয়ায় তাদের জীবনে অনেক জটিলতা নেমে আসে। পরে ফয়সাল মালয়েশিয়া ও পরবর্তীতে আমেরিকায় জাহাজের চাকরি নিয়ে চলে যাওয়ায় তাদের সম্পর্কের বন্ধন প্রতীক্ষার যুদ্ধে অবতীর্ণ হয়। বিশ্বাস ছিল তারা এক হবেই। পারিবারিক সব বাধা-বিপত্তি কাটিয়ে অবশেষে দীর্ঘ নয় বছর পর বিয়ে হয় তাদের।
‘কিন’’ শিরোনামে গল্প লিখে তৃতীয় স’ান অধিকার করেছেন সাফরিনা ইসলাম ইভা। ২০০৯ সালে ইভা বোনের শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে গেলে দেখা হয় সাইফের সঙ্গে। প্রথম দেখাতেই ভালো লাগা। তারপর ফেইসবুকে বন্ধুত্বের অনুরোধ পাঠানো। ২০১৫ সালে সব প্রতিকূলতা ছাপিয়ে বিয়ে হয়। ২০১৭ সালে তাদের কোল আলো করে আসে কন্যা সন্তান। আজ বুধবার রেডিসনের ভ্যালেন্টাইন উৎসবে ১২০০ ভালোবাসার গল্পের মধ্যে সেরা হওয়া এ তিনজন পাবেন পুরস্কার। এর মধ্যে রয়েছে বিদেশ ভ্রমণের বিমান টিকেটসহ দেশের পাঁচতারা হোটেল স্যুটে রাতযাপনের সুযোগ, ক্যান্ডেল লাইট ডিনার।
ভালোবাসা দিবসে রেডিসনের মোহনা হলে বিশেষ অনুষ্ঠানে অংশ নেবে ব্যান্ডদল সোলস এবং শিল্পী এলিটা। সাথে রয়েছে রাত ৮টা থেকে ১১টা পর্যন্ত আকর্ষণীয় ও সুস্বাদু ব্যুফে ডিনারসহ লাইভ কনসার্ট উপভোগের বিশেষ সুযোগ। আর অনুষ্ঠান উপভোগের সাথে সেরা তিন সৌভাগ্যবান গল্পকার শোনাবেন তাদের রচিত গল্পের অভিজ্ঞতা।