ব্যতিক্রমী উদ্যোগ

রাজু কুমার দে, মিরসরাই

মিরসরাইয়ের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের পুত্র মাহবুবুর রহমান রম্নহেল গত রবিবার বাংলা নববর্ষের দিন সকালে তিনি উপজেলার ১০ উদ্যোমী যুবককে সাথে নিয়ে খৈয়াছরা ঝর্ণার প্রায় ১ কিলোমিটার পরিষ্কার করেছেন। এসময় মাহবুবুর রহমান রম্নহেল ছাড়াও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ আলীর পুত্র রিয়াজ বিন আলী, জাফর ইকবাল নাহিদ, একরামুল হক সোহেল, মাসুদ রানা, মহিউদ্দিন মহিন, আব্দুল কাইয়ুম মিঠুন, আসিফ নিজামী সৈকতসহ খৈয়াছড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিড়্গার্থীরা উপসি’ত ছিলেন। জানা গেছে, খৈয়াছড়া ঝর্ণায় প্রতিদিন শত শত পর্যটক আসে। এসব পর্যটকের সাথে থাকা পানির বোতল, খাবার প্যাকেট, পস্নাস্টিকের পলিথিনসহ বিভিন্ন আবর্জনা যত্রতত্র ফেলে রাখা হতো। কিন’ নববর্ষ উপলড়্গে মাহবুবুর রহমান রম্নহেল খৈয়াছড়া ঝর্ণার প্রায় এক কিলোমিটার পর্যনত্ম পরিষ্কার করেন। এসময় প্রায় ১শ কেজি পস্নাস্টিক, কয়েকশ খাবার প্যাকেট পরিষ্কার করা হয়। কুমিলস্না থেকে খৈয়াছড়া ঝর্ণায় আসা পর্যটক সুমন চৌধুরী জানান, সত্যি এটি একটি ব্যতিক্রমী আয়োজন। বিশেষ করে তারম্নণ্যের আইকন ইঞ্জিনিয়ার মাহবুবুর রহমান রম্নহেল নেতৃত্ব দেয়ায় অভিযানটি আরো বেশি গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছে। পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতায় অংশ নেয়া রিয়াজ বিন আলী জানান, নববর্ষ উপলড়্গে দেশকে নতুন ভাবে সাজিয়ে দিতে সচেতনতামূলক ইঞ্জিনিয়ার মাহবুবুর রহমান রম্নহেলের নেতৃত্বে খৈয়াছরা ঝর্ণা পরিষ্কার করা হয়। এসময় তিনি খৈয়াছড়া ঝর্ণায় টুরিস্ট গাইড নিয়োগ, ডাস্টবিন বসানো সহ বিভিন্ন উদ্যোগ নেবেন বলে জানান। মাহবুবর রহমান রম্নহেল জানান, তিনি প্রকৃতিকে খুব ভালবাসেন। প্রকৃতির ভালবাসা থেকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযানের বিষয়টি মাথায় আসে। তাই বছরের প্রথম দিনে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতায় নেমে পড়েন। সবাই যদি নিজ নিজ এলাকা পরিষ্কার রাখে তাহলে আমাদের পরিবেশ আরো বেশি সুন্দর হবে।