বেসরকারি ব্যাংকে ঋণের সুদ সর্বোচ্চ ৯ শতাংশ

সুপ্রভাত ডেস্ক

১ জুলাই থেকে ঋণের ওপরে ৯ শতাংশের বেশি সুদ নেবে না বেসরকারি ব্যাংকগুলো। এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বেসরকারি ব্যাংক মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স (বিএবি)।
বুধবার রাজধানীর গুলশানে জব্বার টাওয়ারে অনুষ্ঠিত বিএবি’র এক সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন সংগঠনের সভাপতি নজরুল ইসলাম মজুমদার। খবর বাংলাট্রিবিউন।
তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সভায় বিভিন্ন বেসরকারি ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও উদ্যোক্তা পরিচালকরা উপসি’ত ছিলেন।
নজরুল ইসলাম মজুমদার বলেন, ‘জুলাইয়ের ১ তারিখ থেকে তিন মাস মেয়াদি আমানতের সর্বোচ্চ সুদের হার হবে ৬ শতাংশ, আর ঋণের সুদহার হবে ৯ শতাংশ।
এর চেয়ে কোনও ব্যাংক সুদ বেশি নিতে পারবে না।’ যেসব ব্যাংক এ সিদ্ধান্ত মানবে না, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস’া নেওয়া হবে বলেও জানান তিনি। তিনি বলেন, ‘দেশের অর্থনীতি ও উন্নয়নের ধারা এগিয়ে নিতেইএ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’
নজরুল ইসলাম মজুমদার আরও বলেন, ‘ইসলামী ব্যাংক, এসআইবিএল, ইউনিয়ন ব্যাংক, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংক ও আল-আরাফা ইসলামী ব্যাংক ইতোমধ্যেই ঋণের সুদের হার এক অঙ্কের ঘরে নামিয়ে আনার ঘোষণা দিয়েছে, যা আগামী ১ জুলাই থেকেই কার্যকর করবে তারা। এসব ব্যাংক যদি এমন সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারে, তাহলে অন্যরা কেন পারবে না?’
অনুষ্ঠানে এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংক লিমিটেডের (এনজিবি) চেয়ারারম্যান নিজাম চৌধুরী, সাউথ-ইস্ট ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান ও পরিচালক আজিম উদ্দিন আহমেদ, এনআরবি কমার্শিয়াল (এনআরবিসি) ব্যাংকের চেয়ারম্যান তমাল এস এম পারভেজ বক্তৃতা করেন।
সভায় ব্যাংক উদ্যোক্তারা আমানত সংগ্রহে যে অসুস’ প্রতিযোগিতা হয়, তা বন্ধের দাবি জানিয়েছেন। একই সঙ্গে তারা সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগ বন্ধ করারও দাবি জানান। এসব সমস্যা নিরসনে প্রধানমন্ত্রী, অর্থমন্ত্রী ও গভর্নরের সঙ্গে পরামর্শ করবেন বলে সভায় জানান বিএবি সভাপতি নজরুল ইসলাম মজুমদার।