বিশ্ব মুসলিম ঐক্য সংহত হয় জুলুসে

আঞ্জুমানে রাহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্টের প্রস্তুতিসভা

বিশ্বের জন্য আল্লাহর রহমত হিসেবে আবির্ভূত হুজুর রাসুলে পাক সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লার শুভাগমন দিবসে আনজুমান-এ-রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্টের উদ্যোগে বিশ্বের বৃহত্তম জশনে জুলুস অনুষ্ঠিত হবে। আওলাদে রসুল আল্লামা সৈয়্যদ মুহাম্মদ তাহের শাহ‘র সদারতে ৯ রবিউল আউয়াল ঢাকায় ও ১২ রবিউল আউয়াল চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিত হবে বিশ্বের বৃহত্তম জশনে জুলুস।
এ উপলক্ষে আঞ্জুমানে রাহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্ট গঠিত জশনে জুলুস মিডিয়া উপকমিটির এক প্রস্তুতি সভা গতকাল ১৪ নভেম্বর আলহাজ মাহাম্মদ আমির হোসেন সোহেলের সভাপতিত্বে পিএইচপি হাউজে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন আনজুমান-এ-রহমানিয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া ট্রাস্টের সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট আলহাজ মোহাম্মদ মহসিন।
বিশেষ অতিথি ছিলেন আনজুমান ট্রাস্টের এডিশনাল সেক্রেটারি আহ্বায়ক আলহাজ মোহাম্মদ সামশুদ্দীন, প্রেস এন্ড পাবলিকেশন সেক্রেটারি অধ্যাপক আলহাজ কাজী সামশুর রহমান, জামেয়া আহমদিয়া সুন্নিয়া আলিয়ার গভনিং বডির চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোহাম্মদ দিদারুল ইসলাম চৌধুরী।
জুলুস প্রস্তুতি কমিটির সদস্যদের মধ্যে আলোচনা করেন দিলশাদ আহমেদ, অ্যাডভোকেট মোছাহেব উদ্দিন বখতিয়ার, অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, অধ্যক্ষ মোহাম্মদ আবু তালেব বেলাল, আলহাজ ছাবের আহমেদ, আলহাজ সাদেক হোসেন পাপ্পু, আবু নাছের মোহাম্মদ তৈয়ব আলী, মোহাম্মদ এরশাদ খতিবী, আশেকে রসুল খান বাবু, সাইফুল আলম সিদ্দিকী, হোসাইন খোকন সিদ্দিক ও আজাদ হোসাইন প্রমুখ।
প্রধান অতিথি বলেন, আল্লামা সৈয়্যদ মুহাম্মদ তৈয়্যব শাহ (রহঃ) ১৯৭৪ সালে পবিত্র জশনে জুলুস প্রবর্তন করেন। এ জুলুস চট্টগ্রামের এক ধর্মীয় ঐতিহ্য ও কৃস্টিতে পরিনত হওয়ার পাশাপাশি বর্তমান এ জুলুস দেশ-বিদেশের সর্বত্র ব্যাপকভাবে পালিত হচ্ছে। এ জুলুসের মাধ্যমে বিশ্ব মুসলিম ঐক্য সংহত ও ভ্রাতৃত্বের বন্ধন দৃঢ় হয়। পরে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র আলহাজ্ব এবিএম মহিউদ্দীন চৌধুরীর রোগমুক্তি কামনা করে দোয়া করেন প্রধান অতিতি আলহাজ্ব মোহাম্মদ মহসিন। বিজ্ঞপ্তি