ক্ষুদ্র উদ্যোগ খাত

বিশ্ব ব্যাংকের ১১০ মিলিয়ন ডলার ঋণ সহায়তা চুক্তি

সুপ্রভাত ডেস্ক

বাংলাদেশ সরকার এবং বিশ্ব ব্যাংক একটি ঋণ চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছে। বিশ্ব ব্যাংক এই চুক্তির আলোকে বাংলাদেশকে ১১০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারের অর্থ সহায়তা দেবে।
১১০ মিলিয়ন টেকসই এন্টারপ্রাইজ প্রকল্প (এসইপি) উৎপাদন এবং কৃষি ভিত্তিক বাণিজ্য সেক্টরে পরিবেশবান্ধব প্রায় ২০ হাজার ক্ষুদ্র উদ্যোক্তা সৃষ্টি করতে সহায়ক ভূমিকা রাখবে। উদ্ভাবনী, পরিবেশবান্ধব টেকসই প্রযুক্তির জন্য ক্ষুদ্র এন্টারপ্রাইজে এই ঋণ দেয়া হবে।
অথনীতি সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব কাজী শফিকুল আজম এবং বিশ্ব ব্যাংকের বাংলাদেশ, ভূটান ও নেপাল বিষয়ক কান্ট্রি ডিরেক্টর কিমিয়াও ফ্যান গতকাল বিকেলে রাজধানীর শেরে বাংলানগরে ইআরডি’তে সরকার ও বিশ্ব ব্যাংকের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন। ৩৮ বছর মেয়াদে শূন্য শতাংশ সুদ এবং শূন্য দশমিক ৭৫ শতাংশ সাভির্স চার্জে বাংলাদেশকে এই ঋণ দেয়া হচ্ছে। খবর বাসস এর।
চুক্তি স্বাক্ষর শেষে ইআরডি সচিব কাজী শফিকুল আজম বলেন, সামপ্রতিক বছরগুলোতে বাংলাদেশ সরকার একটি সবুজ পরিচ্ছন্ন এবং অধিক জলবায়ু সহিষ্ণু অর্থনীতি গড়ে তুলতে সুনির্দিষ্ট পদক্ষেপ নিয়েছে। তিনি বলেন, এই প্রকল্প গতিশীল ও অধিক টেকসই প্রবৃদ্ধি অর্জনে অবদান রাখবে। বিশ্বব্যাংক কান্ট্রি ডিরেক্টর কিমিয়াও ফান বলেন, সারাবিশ্বে দারিদ্র বিমোচন এবং টেকসই প্রবৃদ্ধি অর্জনে আমরা ক্লিন, গ্রীন ও জলবায়ু প্রযুক্তি সহায়তা দিচ্ছি। তিনি বলেন, প্রকল্পটি বাংলাদেশে মানসম্পন্ন কর্মসংস’ান সৃষ্টি, প্রতিযোগিতামূলক ও প্রবৃদ্ধি অর্জনে সহায়ক হবে।