বিশ্বকাপ উম্মাদনায় ফুটবল জার্সির বাজার রমরমা

সুপ্রভাত ডেস্ক
football-Jersey-aam-27052018-0025

বিশ্বকাপ আসরের পর্দা উঠার আগেই ‘দিনরাত’ ফুটবল খেলায় মেতেছে পাড়া-মহল্লার তরুণরা; তাই বেড়ে গেছে ফুটবল ও বুটের দোকানের বিক্রি। মঙ্গলবার গুলিস্তানের মাওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়াম, বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম ও কাঠের মার্কেট, কলা বাগান, গুলশান ডিসিসি মার্কেট, বসুন্ধরা সিটির দোতালা এবং মোস্তফা মার্টে দেখা যায় ক্রীড়ানুরাগীদের ভিড়। খবর বিডিনিউজের।
বিক্রেতারা জানালেন, অন্য সময়ের তুলনায় কয়েকগুণ বেশি চাহিদা তৈরি হয়েছে ফুটবল খেলার বল, বুটসহ আনুসঙ্গিক সরঞ্জামের। মান ভেদে ফুটবল বিক্রি হচ্ছে ৫০০ থেকে একহাজার ৮০০ টাকায়; বুট মিলছে ৩০০ থেকে আট হাজার টাকায়। ফুটপাতে বিভিন্ন দলের জার্সির পসরা নিয়ে এক বিক্রেতা। গুলিস্তান হকি স্টেডিয়ামের সিটিজেন স্পোর্টস ফেয়ারের কর্মচারী মিনহাজ বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ‘দেশে তৈরি বুটের দাম ৩০০ থেকে ৫০০ টাকার ভেতরে। ভারতীয়গুলো ৬০০ থেকে দুই হাজার, চীনে তৈরি বুটের দাম শুরু দুই হাজার ২০০ থেকে আট হাজার টাকা পর্যন্ত।’
এই দোকানে ফুটবল বিক্রি হচ্ছে ৫০০ থেকে দেড় হাজার টাকায়। বসুন্ধরা শপিং মলের ইডেন স্পোর্টসের বিক্রেতা তরিকুল জানান, বিশ্বকাপ উপলক্ষে বিক্রির চাপে দম ফেলার সুযোগ মিলছে না তাদের। বসুন্ধরার স্পোর্টস জোন, স্পোর্টস ঘর, স্পোর্টস ক্লাব, এশিয়ান স্পোর্টসসহ বিভিন্ন দোকানে ঘুরে দেখা যায়, ফুটবল খেলার বুট বিক্রি হচ্ছে দুই হাজার থেকে ১৫ হাজার টাকার মধ্যে। ফুটবল মিলছে ৮০০ থেকে এক হাজার ২০০ টাকায়। ইতালীয় ব্র্যান্ড লোটোতে বুটের দাম রাখা হচ্ছে সাড়ে তিন হাজার থেকে ছয় হাজার টাকা।এখানে ফুটবল পাওয়া যাচ্ছে ৮০০ থেকে হাজারের ভেতরেই।
বসুন্ধরা শপিং মলে বুটের দরদাম করছিলেন আনিসুর রহমান। তিনি বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ‘এখানে বুটের মান ভাল, চোখ বন্ধ করে কেনা যায়, আর এছাড়া দোকানও পরিচিত।’
এদিকে অনলাইন বাজার থেকেও পছন্দের পণ্যটি বেছে নিচ্ছেন অনেকে।