প্রশ্ন কাদেরের

বিদেশি পর্যবেক্ষকের জন্য কি ভোট পেছাবে

সুপ্রভাত ডেস্ক

নির্বাচন কমিশন ৩০ ডিসেম্বর ভোটের তারিখ রাখায় বিএনপি যে সন্দেহ প্রকাশ করেছে, তাকে ‘অযৌক্তিক’ বলেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি প্রশ্ন রেখেছেন, কোনো কারণে যদি বিদেশি পর্যবেক্ষক আসতে না পারে, সেজন্য কি নির্বাচন পেছাতে হবে? খবর বিডিনিউজ।
গতকাল মঙ্গলবার ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদেরের এ বক্তব্য আসে।
তিনি বলেন, ‘কোনো বিদেশি পর্যবেক্ষকের ব্যক্তিগত কারণে আসতে বিলম্ব হলে একটি রাষ্ট্র তার নির্বাচন পেছাতে পারে না। বিদেশি পর্যবেক্ষকদের জন্য জাতীয় নির্বাচনের তারিখ পিছাতে হবে এটা হাস্যকর, অবান্তর, অবাস্তব, ভিত্তিহীন ও অযৌক্তিক দাবি।’
ঐক্যফ্রন্টের দাবির প্রেক্ষিতে নির্বাচন কমিশন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন এক সপ্তাহ পিছিয়ে ৩০ ডিসেম্বর ভোটের নতুন তারিখ ঠিক করে দিয়েছে। কিন’ তাতে আপত্তি তুলে ভোট এক মাস পেছানোর দাবিতে অনড় থাকার কথা জানিয়েছে বিএনপি। বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী গতকাল মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ২৫ ডিসেম্বর খ্রিষ্টান ধর্মাবলম্বীদের বড়দিন। এরপর ইংরেজি নববর্ষ। বিদেশি পর্যবেক্ষক ও কূটনীতিবিদরা অনেকেই এ সময় ছুটিতে থাকেন।
‘তাদের দৃষ্টির অন্তরালে একটা বড় ভোট চুরির নির্বাচন করতে সরকারের কৌশলী নির্দেশে ৩০ ডিসেম্বর ভোটের দিন নির্ধারণ করছে ইসি।’
বিএনপির ওই বক্তব্যের বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘দেশটাকে ছোট ভাববেন না, দেশটাকে উপরে তুলে দিন। আমাদের দেশ সবার উপরে। আমরা কারো চেয়ে ছোট না। বন্ধু দেশ আমাদের অসংখ্য আছে। কিন’ মর্যাদায় আমরা কারো চেয়ে ছোট না।’
বিএনপি যদি আন্দোলনের চিন্তা করে তাহলে ‘দেশের জনগণ’ তাদের প্রতিরোধ করবে বলেও হুঁশিয়ার করেন ক্ষমতাসীন দলের এই নেতা।
তিনি বলেন, ‘জনগণ এখন নির্বাচনের মুডে রয়েছে। তফসিল ঘোষণার পর নির্বাচন সংক্রান্ত সকল সিদ্ধান্ত নির্বাচন কমিশনের।’
নির্বাচনে শরিকদের সঙ্গে আসন ভাগাভাগি নিয়ে এক প্রশ্নের উত্তরে কাদের বলেন, ‘আগে নিজেদের মনোনয়ন নিশ্চিত করে পরে দলীয় আসন বণ্টন। কাল সন্ধ্যা থেকে শুরু হবে মনোনয়ন যাচাই বাছাই প্রক্রিয়া। আওয়ামী লীগের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সভায় তা নির্ধারণ করা হবে।’
তিনি জানান, মনোনয়ন বোর্ডের সভায় সভাপতিত্ব করবেন দলের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সাক্ষাৎকারের পর মনোনয়ন প্রক্রিয়া শুরু হবে।
আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ফরম নেওয়ার সুযোগ আর না থাকলেও যারা সোমবার পর্যন্ত ফরম নিয়ে জমা দিতে পারেননি, তারা গতকাল মঙ্গলবারও জমা দিতে পারবেন।
অন্যদের মধ্যে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, একেএম এনামুল হক শামীম, সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, কার্যনির্বাহী সদস্য এস এম কামাল হোসেন এ সময় উপসি’ত ছিলেন।