টেকনাফে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ ও রোকেয়া দিবস পালন

বাল্যবিবাহ বন্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ার আহ্বান

নিজস্ব প্রতিনিধি, টেকনাফ

টেকনাফে আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ ও বেগম রোকেয়া দিবস পালন উপলক্ষে এক র্যা লি, আলোচনা সভা ও জয়ীতা সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল ৯ ডিসেম্বর টেকনাফ উপজেলা প্রশাসনের পৃষ্ঠপোষকতায় উপজেলা মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর এ মহতি অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।
এ উপলক্ষে সকাল ১০টায় উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে এক র্যা লি বের হয়ে উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে।
পরে মহিলা বিষয়ক প্রশিক্ষণ কেন্দ্র প্রাঙ্গণে উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা আলমগীর কবিরের সভাপতিত্বে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপসি’ত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শফিউল আলম।
মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা নুরুল আবছারের সঞ্চালনায় এতে অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান তাহেরা আক্তার মিলি, কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ মো আবদুল লতিফ, সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা সৈয়দ হুমায়ুন মোর্শেদ, মডেল থানার এসআই সামিউর।
অন্যদের মধ্যে রেডিও নাফের স্টেশন ইনচার্জ মো. সিদ্দিক হোসেন, ব্রাকের রতন কুমার চৌধুরী, কুলসুমা বেগম, সাংবাদিক জিয়াবুল হক, নুরুল হোছাইন, সাইফুদ্দিন মোহাম্মদ মামুন উপসি’ত ছিলেন। বক্তব্য রাখেন আশেক উল্লাহ ফারুকী, ছাত্রী তানিয়া প্রমুখ।
সভায় উপজেলা পর্যায়ে সফল জয়ীতাদের মধ্যে উপজেলা পরিষদ মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান তাহেরা আক্তার মিলিকে সমাজ উন্নয়নে অসামান্য অবদান রাখায়, কেকে পাড়ার মমিনা বেগমকে সফল জননী, টেকনাফ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় শিক্ষিকা হাসিনা মোর্শেদকে শিক্ষা ও নারী ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জনকারী, পুরান পল্লান পাড়ার আমেনা বেগমকে অর্থৈনৈতিকভাবে সাফল্য অর্জনকারী হিসেবে ক্রেস্ট ও সনদ প্রদান করা হয়।
সভায় বক্তাগণ বাল্যবিবাহ রোধ করে নারী ক্ষমতায়নের পথকে সুগম করতে কন্যা শিশুর সুষ্ঠু বিকাশের লক্ষ্যে তাদের জন্য যথাযথ শিক্ষা, ইভ টিজিং, এসিড সহিংসতা এবং যৌন নির্যাতনসহ কন্যা শিশুর প্রতি সকল প্রকার সহিংসা বন্ধে সামাজিক প্রতিরোধ ও সচেতনতা গড়ে তোলার উপর গুরুত্বারোপ করেন।
উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় ও ”জয়িতা অন্বেষণে বাংলাদেশ” কার্যক্রমের আওতায় মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে দিবসটি পালিত হয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন