বান্দরবানে রোগীদের জন্য অ্যাম্বুলেন্স দিলেন সূফি মিজান

নিজস্ব প্রতিবেদক, বান্দরবান
বান্দরবানে পিএইচপি ফ্যামিলি’র উদ্যোগে প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান আলহাজ সূফি মুহম্মদ মিজানুর রহমান পার্বত্য প্রতিমন্ত্রীর হাতে অ্যাম্বুলেন্সের চাবি হস্তান্তর করছেন -সুপ্রভাত
বান্দরবানে পিএইচপি ফ্যামিলি’র উদ্যোগে প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান আলহাজ সূফি মুহম্মদ মিজানুর রহমান পার্বত্য প্রতিমন্ত্রীর হাতে অ্যাম্বুলেন্সের চাবি হস্তান্তর করছেন -সুপ্রভাত

বান্দরবানে পিএইচপি ফ্যামিলির সূফি মিজান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে রোগীদের ব্যবহারের জন্য রোটারী ক্লাবকে একটি অ্যাম্বুলেন্স হস্তান্তর করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার দুপুরে বান্দরবানের ভেনার্স রেস্টুরেন্ট মিলনায়তনে আনুষ্ঠানিকভাবে এটি হস্তান্তর করেন পিএইচপি ফ্যামিলি ও সূফি মিজান ফাউন্ডেশন চেয়ারম্যান আলহাজ সূফি মুহম্মদ মিজানুর রহমান।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি। রোটারিয়ান অমল কান্তি দাশের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান সিইয়ং ম্রো, জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক, জেলা পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায়, রোটারিয়ান মোহাম্মদ ইসমাঈল, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুছ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
পরে রোটারী ক্লাবের উদ্যোগে পিএইচপি গ্রুপের চেয়ারম্যানসহ অতিথিদের ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।
বিশেষ অতিথি আলহাজ সূফি মিজান ফাউন্ডেশন ও পিএইচপি ফ্যামিলির চেয়ারম্যান আলহাজ সূফি মিজানুর রহমান বলেন, পার্বত্যাঞ্চলের মানুষেরা খুবই কর্মঠ ও আগ্রহী। কিন্তু দক্ষতার অভাবে আমাদের দেশের শ্রমিকেরা বিদেশে গিয়ে নায্য মূল পাচ্ছে না। তাই শিক্ষিত ও প্রশিক্ষিত শ্রমিক তৈরির জন্য বান্দরবানে আন্তর্জাতিক মানের একটি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ প্রতিষ্ঠার ঘোষণা দেন। প্রতিষ্ঠানের জন্য সরকার জায়গার ব্যবস্থা করে দিলে পিএইপি গ্রুপের অর্থায়নে দ্রুতই এখানে ট্রেনিং ইনস্টিটিউট গড়ে তুলতে প্রয়োজনীয় সবধরনের সহযোগিতার প্রতিশ্রুতি দেন। তিনি আরো বলেন, পৃথিবীতে আমার যা কিছু আছে, তার কোনো সম্পদই আমার নয়। আল্লাহর আমানত আমি শুধু ব্যবহার করছি।
তিনি আরো বলেন, মানুষকে মানব সন্তান হিসেবে সম্মান করতে হবে। ধনী গরীব, বিভিন্ন ধর্ম গোত্রের মানুষ আমরা সকলেই মানব সন্তান। পৃথিবীতে সবকিছুর শেষ আছে, কিন্তু দানের শেষ নেই। দানের মধ্যে যে সুখ আছে, তা কোনো কিছুতেই পাওয়া যায়। ভোগে নয়, ত্যাগের মধ্যে পরিপূর্ণ সুখ ও শান্তি লুকিয়ে আছে।
প্রধান অতিথি পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর এমপি বলেন, পাহাড়ের মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে পিএইচপি ফ্যামিলির পক্ষ বান্দরবানে অ্যাম্বুলেন্সটি দিয়েছেন। পার্বত্যবাসীর উন্নয়নে পিএইচপি গ্রুপসহ দেশের বিত্তশালীদের আরো বেশি এগিয়ে আসতে হবে। এ অঞ্চলের মানুষের শিক্ষা, স্বাস্থ্য এবং কর্মসংস্থান তৈরিতে সহযোগিতার হাত বাড়াতে হবে।
তিনি আরো বলেন, পিএইচপি ফ্যামিলির দেয়া অ্যাম্বুলেন্সটি পার্বত্য জেলা পরিষদের তত্ত্বাবধানে থাকবে। জেলার সাতটি উপজেলার দুর্গমাঞ্চলগুলোতে দরিদ্র-গরিব-অসহায় রোগীদের সুচিকিৎসায় বিনা পয়সায় অ্যাম্বুলেন্সটি ব্যবহার করবে।