বৌদ্ধভিক্ষু হত্যা মামলা

বান্দরবানে তিন জঙ্গির ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

নিজস্ব প্রতিবেদক, বান্দরবান

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়িতে বৌদ্ধভিক্ষু মংসই উ (৭৮) হত্যা মামলায় গ্রেফতারকৃত তিন জঙ্গির রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত।
গতকাল সোমবার সকালে ওই তিন জঙ্গিকে কারাগার থেকে কড়া নিরাপত্তা ব্যবস’ায় বান্দরবান অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আবু হানিফের আদালতে হাজির করে পুলিশ। আদালতে জঙ্গিদের ৭ দিন করে রিমান্ডের আবেদন জানায় পুলিশ।
আদালত আসামিদের মধ্যে সীতাকুণ্ড জঙ্গি আস্তানা থেকে গ্রেফতারকৃত জহিরুল হক ও কুমিল্লার জঙ্গি আস্তানা থেকে পালানোর সময় গ্রেফতারকৃত মাহমুদুল হাসানকে চারদিন করে এবং জঙ্গি জহিরের স্ত্রী রাজিয়া বেগমের ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। তাদের মধ্যে জঙ্গিদম্পতির বাড়ি নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বাইশারী ইউনিয়নের যৌথ খামারপাড়ায় এবং মাহমুদুলের বাড়ি বাইশারী ইউনিয়নের লম্বাবিল এলাকায়।
পুলিশ জানায়, গত বছরের ১৪ মে নাইক্ষ্যংছড়ির বাইশারী ইউনিয়নের উত্তর চাকপাড়া বৌদ্ধবিহারের (কিয়াং) প্রধান ভিক্ষু মংসই উকে গলা কেটে হত্যা করা হয়।
দুই বছর আগে ওই বৌদ্ধ বিহারটি প্রতিষ্ঠা করা হয়। এর পর থেকেই বিহারের প্রধান ভিক্ষু হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন মংসই।
ভিক্ষু হত্যার ঘটনায় তার ছেলে চিংসাউ চাক নাইক্ষ্যংছড়ি থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। ওই মামলায় তিন জঙ্গিকে গ্রেফতার দেখিয়ে গত ২৯ মে কড়া নিরাপত্তায় আদালতে হাজির করা হয়। পরে বিচারক অভিযোগ আমলে নিয়ে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।
এছাড়া ওই মামলায় হ্লামং চাক, মিয়ানমারের রোহিঙ্গা নাগরিক জিয়া উদ্দিন ও রহিম নামে আরো তিনজনকে গত বছর গ্রেফতার করা হয়।
গ্রেফতারকৃত ওই তিন জঙ্গিকে গতকাল রোববার চট্টগ্রাম কারাগার থেকে বান্দরবান জেলহাজতে আনা হয়। সেখান থেকে গতকাল বৌদ্ধভিক্ষু হত্যা মামলায় আদালতে হাজির করা হয়।