বাংলা ভাষাকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দিতে হবে

বিজ্ঞপ্তি

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট)-এ ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণে ভাষা প্রযুক্তি’ শেস্নাগানে দুই দিনব্যাপী ‘গাণিতিক ভাষাতত্ত্ব ও বাংলা ভাষা প্রক্রিয়াজাতকরণ’ শীর্ষক প্রথম জাতীয় কর্মশালা শুরম্ন হয়েছে।

গতকাল ২৪ সেপ্টেম্বর, সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের কাউন্সিল কড়্গে আয়োজিত উক্ত জাতীয় কর্মশালায় প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সদস্য প্রফেসর ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন।

এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন চুয়েটের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম, ‘চুয়েট আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর স’াপন প্রকল্প’-এর প্রকল্প পরিচালক (উপ-সচিব) সৈয়দ জহুরম্নল ইসলাম, গিগা টেক লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর সামিরা জুবেরি হিমিকা।

কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. আসাদুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মশিউল হক।

চুয়েটের কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ এবং ‘চুয়েট আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর স’াপন প্রকল্প’ বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপড়্গ, আইসিটি বিভাগের যৌথ উদ্যোগে উক্ত কর্মশালার আয়োজন করা হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সদস্য প্রফেসর ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন ইউজিসি ভবন থেকে স্কাইপেতে বলেন, ‘তথ্যপ্রযুক্তির বর্তমান বৈপস্নবিক ধারার সুবিধা দেশব্যাপী ছড়িয়ে দিতে হলে ভাষাপ্রযুক্তি নিয়ে কাজ করতে হবে। কম্পিউটার ও ইন্টারনেট উপযোগী করে বাংলা ভাষাকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে দিতে হবে। চুয়েট এড়্গেত্রে অগ্রগামী ভূমিকা রেখেছে। চুয়েটের এই জাতীয় কর্মশালার মাধ্যমে তরম্নণ প্রজন্ম উৎসাহিত হবে। তাঁরা বর্তমান তথ্য-প্রযুক্তির বৈশ্বিক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় বাংলা ভাষা নিয়ে কাজ করতে পারবে। আমরা চাই আমাদের দেশেও উদ্যোক্তা তৈরি হোক। যারা চমকপ্রদ কিছু প্রজেক্ট তৈরি করবে। যার মাধ্যমে দেশও অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হবে। সেজন্য ইন্ডাস্ট্রি-একাডেমিয়া সম্পর্কন্নোয়নে সংযোগ বাড়াতে হবে।’

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চুয়েটের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম বলেন, ‘আনত্মর্জাতিক যোগাযোগের মাধ্যম ইংরেজি হলেও বিশ্বব্যাপী বাংলা ভাষাকে ছড়িয়ে দিতে হবে। সেজন্য বর্তমানে ইন্টারনেট উপযোগী বাংলা ভাষায় কনটেন্ট তৈরি জরম্নরি হয়ে পড়েছে। আমাদের চুয়েটে বাংলাদেশের বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে প্রথম আইটি বিজনেস ইনকিউবেটর স’াপন করা হচ্ছে। এতে করে ছাত্র-ছাত্রীরা চাকরির পেছনে না ছুটে যেন নিজেই উদ্যোক্তা হয়ে ওঠতে পারেন সেটার একটা বড় পস্ন্যাটফর্ম তৈরি করা হয়েছে। ’

কর্মশালায় দেশের ১০টি সরকারি-বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ২০০ জন ভাষা প্রযুক্তিবিদ, শিড়্গাবিদ, গবেষক, বিজ্ঞানী ও শিড়্গার্থী অংশগ্রহণ করেন। কর্মশালার প্রথম দিন দেশের ভাষাপ্রযুক্তি নিয়ে কাজ করা বিভিন্ন ইন্ডাস্ট্রি ও একাডেমিশিয়ানদের ১০টি গবেষণালব্ধ ফলাফল উপস’াপন করা হয়।