বাংলাবাজার জহির কলোনি চাঁদা না পেয়ে সন্ত্রাসী হামলা ভাঙচুর

নিজস্ব প্রতিবেদক

মালিকের কাছে ১০ লাখ চাঁদা চেয়ে না পেয়ে কলোনিতে সশস্ত্র হামলা ও ভাঙচুর চালিয়েছে একদল স’ানীয় দাগী সন্ত্রাসী। সন্ত্রাসীদের হামলায় কলোনির কয়েকটি ভাড়া ঘর তছনছ, দারোয়ান ও তার স্ত্রী আহত হন। নগরীর বায়েজিদ বোস্তামী থানাধীন বাংলাবাজার ডেবারপাড় মুক্তিযোদ্ধা কলোনি সংলগ্ন জহির কলোনিতে
মঙ্গলবার ১১টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় কলোনির মালিক মো. জহির আলম গতকাল বিকেলে বায়েজিদ বোস্তামী থানায় মামলা দায়ের করেছেন।
ঘটনার বিবরণ দিয়ে মো. জহির আলম (৩০) বলেন, আমি দুবাই প্রবাসী। মাঝে মাঝে দেশে বেড়াতে আসি। আমার ভাড়া ঘর ও কলোনির দেখভাল করেন মো. সাদেক। বেশ কিছুদিন ধরে এলাকার পরিচিত চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসী হিসেবে পরিচিত মো. সোহেল (৩৫) এর নেতৃত্বে মো. মামুন (৩০), মো. আবু তাহের (২৭), মো. জাহাঙ্গীর (৩৭), মো. ইমন (২৯) এবং মো. পারভেজ (২৫) আমার কেয়াটেকার সাদেককে হুমকি দিয়ে বলে আসছিল, এখানে নিরাপদে থাকতে হলে আমি যেন তাদের নগদ ১০ লাখ টাকা চাঁদা দিই! আমি তাদের কথায় কর্ণপাত না করায় তারা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে কলোনিতে হামলা করে। এসময় কেয়ারটেকার সাদেক ও তার স্ত্রী বাধা দিতে গেলে তাদের জখম করে কয়েকটি ভাড়া ঘরে ভাঙচুর চালায়। এতে বেশ কয়েকজন ভাড়াটিয়াও আহত হন। যাওয়ার সময় সন্ত্রাসীরা বন্ধুকের গুলি ছোঁড়ে সবাইকে ভয়ভীতি দেখায় ও চাঁদার টাকা দ্রুত পাঠিয়ে দেওয়ার জন্য বলে যায়।
মো জহির আলম সুপ্রভাতকে বলেন, ‘ওরা আসলে আমাকে ভয়ভীতি দেখিয়ে আমার কলোনিটা দখলে নিতে চায়। এ অবস’ায় আমি খুব অসহায় এবং নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। পুলিশ প্রশাসন খুব শীঘ্রই যেন আসামিদের আইনের আওতায় নিয়ে আসেন।’