বাংলাদেশ ‘এ’ দলের লিড

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক

দারুণ এক সেঞ্চুরি উপহার দিলেন সাদমান ইসলাম। টপ অর্ডারে তার সঙ্গে জুটি গড়লেন নাজমুল হোসেন শান্ত। মিডল অর্ডারে দলকে টানলেন নুরুল হাসান। এই তিনের সৌজন্যে প্রথম ইনিংসে আইরিশদের বিপক্ষে লিড নিল বাংলাদেশ ‘এ’ দল। সিলেটে আনঅফিসিয়াল টেস্টের প্রথম ইনিংসে গতকাল ৬ উইকেটে ৩২২ রান তুলে দ্বিতীয় দিন শেষ করেছে বাংলাদেশ ‘এ’। প্রথম ইনিংসে আয়ারল্যান্ড ‘এ’ করেছিল ২৫৫। ৪ উইকেট হাতে নিয়ে বাংলাদেশ এগিয়ে ৬৭ রানে। ১ উইকেটে ৩৮ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিন শুরু করেছিল বাংলাদেশ। সাদমান ও শান্ত দলকে টেনে নেন আরও অনেকটা পথ। লাঞ্চের আগের সেশনে ১০০ রান তুলে কোনো উইকেট হারায়নি বাংলাদেশ। পঞ্চাশ ছাড়িয়ে যান দুজনই। লাঞ্চের পর পথম ওভারেই শান্তর বিদায়ে ভাঙে ১৩৭ রানের দ্বিতীয় উইকেট জুটি। ১৩৫ বলে ৭ চারে ৬৯ করেন শান্ত। অধিনায়ককে হারানোর পর আল আমিনকেও দ্রুত হারায় বাংলাদেশ। চতুর্থ উইকটে ইয়াসির আলি ও সাদমান গড়েন ৬৭ রানের জুটি। থিতু হয়েও ইয়াসির আউট হন দুটি করে চার ও ছক্কায় ৩৫ রান করে। শান্ত-ইয়াসিরদের মত মাঝপথে থমকে যাননি সাদমান। ঘরোয়া ক্রিকেটে বরাবরই ধৈর্য্যশীল ব্যাটিংয়ের জন্য পরিচিত বাঁহাতি ওপেনার ঠিকই তুলে নেন সেঞ্চুরি। ১৮৮ বলে স্পর্শ করেছেন প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তার তৃতীয় সেঞ্চুরি। দল যখন লিড নেওয়ার কাছাকাছি, সাদমান আউট হয়েছেন দ্বিতীয় নতুন বলে। প্রায় সাড়ে ৫ ঘণ্টায় ২১৯ বলে ১০৮ রান করেছেন ১৫ চারে। নুরুল ও মেহেদি হাসানের জুটিতে লিড পেয়ে দল ছাড়িয়ে যায় তিনশ। ষষ্ঠ উইকেটে দুজনে যোগ করেন ৬৬ রান। ৪টি চার ও ১ ছক্কায় ৩৫ রান করে মেহেদি আউট হলেও দলের ভরসা হয়ে টিকে আছেন নুরুল। শেষ করেছেন ৫১ রানে। তৃতীয় দিনে লিড আরও বাড়াতে দল তাকিয়ে থাকবে এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যানের ব্যাটেই। খবর বিডিনিউজ’র।