বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তনে গণমানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়

দেশগ্রাম ডেস্ক
Untitled-1

১০ জানুয়ারি ছিল জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পাকিস্তানের কারাগার থেকে স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের দিন। এ উপলক্ষে দেশগ্রামে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভা ও স্মৃতিচারণা। বক্তারা বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের মাধ্যমে এদেশের গণমানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়। আমাদের প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর।
ফটিকছড়ি : ফটিকছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন উপলক্ষে আলোচনা সভা ১০ জানুয়ারি সকাল ১১টায় ফটিকছড়ি মনিরা কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়। আওয়ামী লীগ নেতা চেয়ারম্যান শাহনেওয়াজ চৌধুরীর সভাপতিত্বে তরুণ আওয়ামীলীগ নেতা বোরহান আহমেদের সঞ্চালনায় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন মুহুরী। বক্তব্য রাখেন মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক দিদারুল বশর চৌধুরী দুদু, জানে আলম কোম্পানি, উপজেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি একে আজাদ বাবুল, সরোয়ার উদ্দিন, পাইন্দং ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি হাবিবুল্লাহ চৌধুরী সাবু, সাধারণ সম্পাদক মজাহারুল ইসলাম চৌধুরী, কাউন্সিলর গোলাপ মওলা গোলাপ, মোহাম্মদ জানে আলম, আহমদুল হক, রফিকুল ইসলাম, ইব্রাহিম সবুজ, মোহাম্মদ সোলায়মান, মোহাম্মদ হোসেন, যুবলীগ নেতা শাহাদাত হোসেন, মোহাম্মদ আলমগীর, মোহাম্মদ দিদার, হেলাল উদ্দিন, মাসুদ রানা, আশিষ চক্রবর্তী, ছাত্রলীগ নেতা এসএম আবু শোয়েব, মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন, মোহাম্মদ জামাল হোসেন। সভায় বক্তারা বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের মাধ্যমে বাংলাদেশে গণমানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠিত হয়। এবং প্রগতিশীল রাজনীতির সূচনা হয়।
পটিয়া : পটিয়া পৌরসভার মেয়র ও পৌরসভা আওয়ামী লীগ সভাপতি অধ্যাপক হারুনুর রশিদ বলেছেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭২ সালের ১০ জানুয়ারি নিজ দেশে ফিরেছিলেন। বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশের জন্ম হতো না। পাকিস্তানে বন্দি থাকা অবস’ায় স্বাধীনতা আন্দোলন থেকে সরে দাঁড়ানোর জন্য ফাঁসির মঞ্চে নিয়েও তাকে দমানো যায়নি। দেশ ও আন্তর্জাতিক চাপের মুখে ৮ জানুয়ারি তাকে মুক্তি দিতে বাধ্য হয় পাকিস্তান সরকার। পরে তিনি ভারত ও লন্ডন হয়ে ১০ জানুয়ারি বাংলাদেশে ফিরেন। যুবলীগকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ধারণ করে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে। মঙ্গলবার বিকেলে পটিয়া উপজেলা ও পৌরসভা যুবলীগের যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে পৌর মেয়র উপরোক্ত কথা বলেন।
উপজেলা যুবলীগ সভাপতি বেলাল উদ্দিন ও পৌরসভা যুবলীগ সেক্রেটারি রফিকুল আলমের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান বক্তা ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগ সাবেক সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আকম সামশুজ্জমান চৌধুরী।
বিশেষ অতিথি ছিলেন পৌরসভা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আলমগীর আলম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ন সম্পাদক চেয়ারম্যান আবদুল খালেক, পৌরসভা আওয়ামী লীগ নেতা ফজলুল হক আল্লাই, এমএনএ নাছির, মো. ইসমাইন, পৌরসভা যুবলীগ সভাপতি নুর আলম সিদ্দিকী, উপজেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক এম এ রহিম।
বক্তব্য রাখেন যুবলীগ নেতা জয়নাল আবেদীন রাসেল, প্রজ্ঞাজ্যোতি বড়-য়া লিটন, মো. বখতিয়ার উদ্দিন, মোরশেদুল হক, নাজিম উদ্দিন, মফিজ উদ্দিন, নজরুল ইসলাম, ইউসুফ খান, জহিরুল হক তালূকদার, আবদুল মোমেন, আলমগীর তালূকদার, ওয়াহিদুল আলম, খাইরুল ইসলাম, এস এম আমান উল্লাহ আমিরী, গোলাম কাদের, মো. ইমরান, মোজাম্মেল হক লিটন, কাজী আবদুল কাদের, নুরুল ইসলাম, আবদুল আউয়াল, সৈয়দ নুর, এনামুল হক মজুমদার, দিদারুল আলম, আবদুল মাজেদ টিটু, হাসান, আবদুল আজিজ, আবু মাসুদ চৌধুরী, মনির আহমদ মুন্না, নাজিম উদ্দিন রনি, সাহাদাত হোসেন সবুজ, দেলোয়ার হোসেন, ছগীর আহমদ, মেম্বার সাইফুল ইসলাম, মো. নাসির, বশর, হারুনুর রশিদ, মো. হোসান, আবদুল আজিজ, মো. হানিফ।
লোহাগাড়া : লোহাগাড়ায় গত ১০ জানুয়ারি মঙ্গলবার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করা হয়। এদিন বিকেলবেলা উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি খোরশেদ আলম চৌধুরীর নেতৃত্বে শহিদ মিনার চত্বরে স’াপিত বঙ্গবন্ধু ম্যুরালে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করা হয়। এ সময় স’ানীয় আওয়ামী লীগ ও সাংবাদিকবৃন্দ উপসি’ত ছিলেন।
বিকেলে উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে আলোচনা সভা মুক্তিযোদ্ধা আবদুস শুক্কুর রশিদীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি খোরশেদ আলম চৌধুরী। অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মুক্তিযোদ্ধা সাংবাদিক নুরুল ইসলাম, মুক্তিযোদ্ধা সাংবাদিক মো. জামাল উদ্দিন, আওয়ামী লীগ নেতা ফরিদ আহমদ, মুক্তিযোদ্ধা আবদুল হামিদ বেঙ্গল, আওয়ামী লীগ নেতা মুজিবুর রহমান, মো. মিয়া ফারুক, চরম্বা ইউপি চেয়ারম্যান মাস্টার শফিকুর রহমান, শ্রমিকনেতা ফরিদ উদ্দিন, শিক্ষক গোপাল কান্তি বড়-য়া, লিটন বড়-য়া রুনা, সলিল বড়-য়া, আসহাব উদ্দিন ও মোহাম্মদুল হক।
সাংবাদিক ও আওয়ামীলীগ নেতা আবুল কালাম আজাদের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তারা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলাকে উন্নতির উচ্চশিখরে পৌঁছানোর জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান।
পেকুয়া : উপজেলা শ্রমিক লীগের উদ্যোগে বঙ্গবন্ধু স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসের আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১০ জানুয়ারি বিকালে পেকুয়া বাজারস’ উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে উপজেলা শ্রমিক লীগ সভাপতি নুরুল আবছারের সভাপতিত্বে সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম বাবুলের পরিচালনায় বঙ্গবন্ধুর স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগ সদস্য পেকুয়া উপজেলা সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি এসএম গিয়াস উদ্দিন, জেলা আওয়ামী লীগ সদস্য উম্মে কুলসুম মিনু, উপজেলা আওয়ামী লীগ ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শাহনেওয়াছ চৌধুরী বিটু, উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ কমিটির সম্পাদক আবুল কাশেম, সহ-সভাপতি ফরিদুল আলম, জেলা শ্রমিক লীগ সহ-সভাপতি আতিক উদ্দিন চৌধুরী, টইটং ইউপির চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ সম্পাদক জাহেদুল ইসলাম চৌধুরী, রাজাখালী ইউপির চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা ছৈয়দ নুর, আওয়ামী লীগ নেতা নুর মুহাম্মদ, সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আজম খান, সম্পাদক বেলাল উদ্দিন, যুবলীগ সম্পাদক মো. বারেক, সৈনিকলীগ সম্পাদক মো. ফারুক, সদর ছাত্রলীগ নেতা ফারুক আজাদ।
উপসি’ত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগ যুগ্ম সম্পাদক আবু শামা, সৈনিক লীগ সভাপতি সাংবাদিক শহিদুল ইসলাম হিরু, মৎস্যজীবী লীগ সভাপতি জাকিরুল ইসলাম, সদর ৪ নম্ব েওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সম্পাদক মো. কাইছার, যুবলীগ যুগ্ম সম্পাদক জালাল উদ্দিন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন সুজন, সৈনিকলীগ নেতা আরশাদুজ্জামান, শ্রমিকলীগ সহ-সভাপতি আবদুল জব্বার, ফরিদুল আলম, জহির উদ্দিন, জকরিয়া, গিয়াস উদ্দিন, বদিউল আলম, আকতার, মো. মুবিনসহ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

আপনার মন্তব্য লিখুন