বক্সিরহাট ওয়ার্ড কাউন্সিলর কার্যালয় ঘেরাও করলেন ব্যবসায়ীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) কর্তৃক আরোপিত অতিরিক্ত গৃহকর প্রত্যাহারের দাবিতে স’ানীয় বাসিন্দা ও চাক্তাই-খাতুনগঞ্জের ব্যবসায়ীরা ৩৫ নম্বর বক্সিরহাট ওয়ার্ড কাউন্সিলর কার্যালয় ঘেরাও কর্মসূচি পালন করেছেন।
গতকাল সকাল সাড়ে এগারোটার দিকে ৩০০-৩৫০ জন ব্যবসায়ী ও স’ানীয় লোকজন কাউন্সিলর কার্যালয়ের সামনে ঘণ্টাব্যাপী অবস’ান করেন। এ সময় ওয়ার্ড কাউন্সিলর নুরুল হকের মাধ্যমে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বরাবরে অতিরিক্ত গৃহকর প্রত্যারের আবেদন জানিয়ে স্মারকলিপিও প্রদান করেন তারা।
মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের কাছে দেওয়া স্মারক লিপিতে ব্যবসায়ীরা বলেন, ‘দেশের রাজস্বের উল্লেখযোগ্য যোগানদাতা চাক্তাই-খাতুনগঞ্জের ব্যবসায়ীরা। এই এলাকায় ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি অনেক নিম্ন আয়ের লোকজনও বসবাস করে। এই এলাকার বাসিন্দারা গৃহকর ছাড়াও প্রতি বছর চসিককে ট্রেড লাইসেন্স বাবদ প্রচুর অর্থ দিয়ে আসছে। ২০১১ সালে গৃহকর দ্বিগুণ করা হয়। বর্তমানে যে হারে গৃহকর বৃদ্ধির প্রস্তাব করা হয়েছে, তা বাস্তবায়ন করা হলে অস্তিত্ব সংকটে পড়বে এই এলাকার অধিবাসীরা। তাই বর্তমানে প্রস্তাবিত অতিরিক্ত গৃহকর প্রত্যাহারের দাবি করছি।’
এ ব্যাপারে চসিকের ৩৫ নম্বর বক্সির হাট ওয়ার্ড কাউন্সিলর নুরুল হক সুুপ্রভাত বাংলাদেশকে বলেন, ‘আমিও ব্যবসায়ীদের সাথে এক মত। তারাও যাতে কর দিতে পারে, আমরাও যাতে কর পাই, সে ব্যাপারে আমরা কাজ করবো। তাদের দাবি-দাওয়ার কথা আমি মেয়রকে জানাবো।’
ওয়ার্ড কার্যালয়ে
ঘেরাও কর্মসূচি এবং স্মারকলিপি প্রদানের সময় সাবেক কাউন্সিলর মুহাম্মদ জামাল হোসেন, চাক্তাই মহল্লা ও সমাজ উন্নয়ন সংস’ার সভাপতি জসিম উদ্দিন মিন্টু, চাক্তাই আওয়ামী লীগ সভাপতি মীর আহমদ সওদাগর, চাক্তাই-খাতুনগঞ্জ আড়ত কল্যাণ সমিতির সভাপতি সোলেমান বাদশা, চট্টগ্রাম রাইস মিল মালিক সমিতির সাবেক সভাপতি ফরিদ উদ্দিন আহমেদ, চাক্তাাই ট্রেড অ্যান্ড অ্যাসোশিয়েশনের যুগ্ম-সম্পাদক নাছির উদ্দিন, চাক্তাই খাতুনগঞ্জ আড়তদার কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক এহসান উল্লাহ জাহেদী, আড়তদার ব্যবসায়ী নেতা মো. মহিউদ্দিন, চট্টগ্রাম চাল ব্যবসায়ী সমিতির নেতা হাজি আনিসুর রহমান, চাক্তাই প্রি-ক্যাডেট হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. বেলাল উদ্দিন, স’ানীয় অধিবাসী আহমদ হোসেন, মো. সেলিম, মো. সোলায়মান লালু, হেলাল উদ্দিন এবং মো মজিবুল্লাহ প্রমুখ প্রমুখ উপসি’ত ছিলেন।