সাবেক স্ত্রী আটক

ফয়’স লেকের হোটেলে যুবকের গলাকাটা লাশ

নিজস্ব প্রতিবেদক

নগরীর খুলশী থানাধীন ফয়’স লেক এলাকার একটি হোটেল থেকে যুবকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার গভীর রাতে হোটেল কর্তৃপক্ষের ফোন পেয়ে পুলিশ এ লাশ উদ্ধার করে। লাশটি ৩৫ বছর বয়সী মো. মাঈনুদ্দিন নামের এক ব্যক্তির বলে পুলিশ সূত্রে জানা যায়। তার বাড়ি ফেনী জেলার ছাগলনাইয়া এলাকায়। এলাকায় তিনি বালুর ব্যবসা করতেন।

ফয়’স লেক এলাকার লেকসিটি নামের তিন তলা আবাসিক হোটেলের দ্বিতীয় তলার একটি কক্ষ থেকে মাঈনুদ্দীনের লাশটি উদ্ধার করা হয়। সাবেক স্ত্রীকে বর্তমান স্ত্রী পরিচয় দিয়ে গত ১৫ আগস্ট বুধবার রাতে ওই হোটেলের ২০৩ নম্বর কক্ষে উঠেন মাঈনুদ্দিন। বৃহস্পতিবার রাতে হোটেল কর্তৃপক্ষ রুম পরিষ্কার করতে গিয়ে মাঈনুদ্দিনের লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়।
এদিকে লাশ উদ্ধারের পরপর পুলিশ অভিযান চালিয়ে মাঈনুদ্দিনের চীন প্রবাসী সাবেক স্ত্রী রোকসানা আকতার পপি নামের এক নারীকে হেফাজতে নিয়েছে। গতকাল শুক্রবার দুই নম্বর গেইট এলাকার একটি বাসা থেকে তাকে আটক করে পুলিশ। পপির নাম উল্লেখ করে থানায় একটি এজহারও দায়ের করেছে মাঈনুদ্দিনের পরিবার।

পুলিশ জানায়, হোটেল কক্ষে গত বুধবার এ নারীকে সাথে নিয়েই উঠেছেন মাঈনুদ্দিন। খুনের ঘটনায় তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। পুলিশ আরও জানায়, প্রায় তিন বছর আগে মাঈনুদ্দিনের সাথে রোকসানা আক্তার পপির বিয়ে হয়। এক বছর আগে তাদের মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদের ঘটনা ঘটে। গত ১৪ আগস্ট চীন থেকে দেশে আসেন পপি। সেখানে তিনি চিকিৎসা শাস্ত্রে পড়াশুনা করেন বলে পরিবার সূত্রে জানা গেছে।
জানা যায়, পপির গ্রামের বাড়ি মিরসরাই উপজেলার জোরারগঞ্জ এলাকায়। তিনি প্রবাসী আবু আহমেদের মেয়ে। বর্তমানে খুলশী থানাধীন দুই নম্বর গেইট এলাকার পাশে অবসি’ত আল ফালাহ গলিতে তাদের বসবাস।
নগর পুলিশের উপ-কমিশনার (উত্তর) আব্দুল ওয়ারিশ সুপ্রভাতকে বলেন, চীন প্রবাসী সাবেক স্ত্রীকে সাথে নিয়ে গত বুধবার রাতে লেকসিটি নামের একটি আবাসিক হোটেলের ২০৩ নম্বর কক্ষে উঠেন মাঈনুদ্দিন। হোটেল কর্তৃপক্ষ রুম পরিষ্কার করতে গিয়ে লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস’লে গিয়ে শরীর থেকে মাথা বিচ্ছিন্ন মাঈনুদ্দিনের লাশ উদ্ধার করে।
আব্দুল ওয়ারিশ আরও বলেন- ঘটনায় জড়ি সন্দেহে চীন প্রবাসী রোকসানা আক্তার পপিকে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। হোটেলের কর্মকর্তা-কর্মচারীদেরকেও থানায় নিয়ে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তদন্তের স্বার্থে এখন নিশ্চিত করে কিছুই বলা যাচ্ছে না। জিজ্ঞাসাবাদ শেষে বিস্তারিত জানানো হবে।