ফাইনাল ‘প্রতিশোধের ম্যাচ নয়’ ক্রোয়েশিয়ার

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক গ্ধ
P10-4

নিজেদের অভিষেক বিশ্বকাপেই সেমিফাইনালে উঠে ফ্রান্সের কাছে হেরে গিয়েছিল ক্রোয়েশিয়া। ২০ বছর পর এবার বিশ্বকাপের ফাইনালে মুখোমুখি দুই দল। ক্রোয়েশিয়ার কোচ জ্লাতকো দালিচ অবশ্য প্রতিশোধের কথা না ভেবে সেরা ম্যাচ খেলার দিকে শিষ্যদের মনোযোগ দিতে বলেছেন। খবর বিডিনিউজ’র।
লুজনিকি স্টেডিয়ামে গত বুধবার সেমিফাইনালে পিছিয়ে পড়ার পর দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে ইংল্যান্ডকে ২-১ গোলে হারায় ক্রোয়েশিয়া। এ মাঠেই আগামী রোববার শিরোপা লড়াইয়ে ফ্রান্সের মুখোমুখি হবে তারা। বেলজিয়ামকে হারিয়ে ফাইনালে উঠে এসেছে দিদিয়ের দেশমের দল।
১৯৯৮ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে নিজেদের মাঠে ২-১ গোলে ক্রোয়েশিয়াকে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছিল ফ্রান্স। সেবার শিরোপাও জিতেছিল স্বাগতিকরা আর তৃতীয় হয়ে শেষ করেছিল ক্রোয়েশিয়া।
লুজনিকির ম্যাচ সামনে রেখে কুড়ি বছর আগের হতাশার স্মৃতি মনে পড়ছে দালিচেরও। কিন’ প্রতিশোধের উত্তাপ ছড়া”েছন না তিনি।
‘১৯৯৮ সালে আমি ফ্রান্সে প্রথম তিন ম্যাচে সমর্থক হিসেবে ছিলাম। ক্রোয়েশিয়ার সবাই ম্যাচটার স্মৃতিচারণ করতে পারে, যখন লিলিয়ঁ তুরাম গোল করল এবং আমরা ২-১ ব্যবধানে হেরে গেলাম। গত ২০ বছর ধরে এটা একটা আলোচনার বিষয়। আমার মনে আছে যখন দাভর সুকের গোল করল আমরা উদযাপন করলাম কিন’ আমরা বসতে না বসতেই ম্যাচে সমতা ফিরল। দুটি দলই তাদের মান দেখিয়েছে। আমরা প্রতিশোধের জন্য খেলব না। এটা ফুটবল, এটা ক্রীড়া। ফাইনালে আমাদের টুর্নামেন্টের সেরা ম্যাচটি খেলার প্রস্ততির দিকে মনোযোগ দিতে হবে।’