মতবিনিময় সভায় মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল

প্রশ্নফাঁস রোধে প্রযুুক্তির ব্যবহার করা হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রশ্নপত্র ফাঁস একটি বড় সমস্যা। এ সমস্যা সমাধানে মুদ্রণের ক্ষেত্রে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করা হবে। বিভিন্ন পাবলিক পরীক্ষায় প্রশ্নফাঁস রোধে কঠোর হব আমরা। এছাড়া শিক্ষাখাতে দুর্নীতি বন্ধে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করা হবে।
গতকাল শুক্রবার সকালে নগরীর সার্কিট হাউসে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এ কথা জানান। উপমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পাওয়ার পর গতকাল শুক্রবার ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে ফেরেন নওফেল।
পাবলিক পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। অভিভাবকদের প্রশ্নপত্রের পেছনে না দৌড়াতে আহ্বান জানিয়ে শিক্ষা উপমন্ত্রী মুহিবুল বলেন, ‘প্রশ্নপত্র চাই- এই মানসিকতা পরিহার করুন। শ্রেণিকক্ষে পাঠদান এবং সিলেবাসের ওপর শিক্ষার্থীরা জোর দিলে এই সমস্যা থাকবে না।
তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যে আস’া রেখেছেন আমি তার প্রতিদান দেওয়ার চেষ্টা করবো। এছাড়াও শিক্ষা বিভাগের উন্নয়নে বিভিন্ন আধুনিক প্রকল্প গ্রহণ করা হবে।
তিনি আরও বলেন, নগরীতে নতুন করে স্কুল-কলেজ সরকারিকরণে উদ্যোগ নেয়া হবে এবং যেসব সরকারি স্কুল-কলেজ আছে সেগুলোতে নতুন করে অবকাঠামোগত উন্নয়ন করে আসন সংখ্যা বাড়ানোর উদ্যোগ নেওয়া হবে।
সভায় আরও উপসি’ত ছিলেন নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক ও মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, সহ-সভাপতি খোরশেদ আলম সুজন, আইনজীবী ইব্রাহীম হোসেন চৌধুরী বাবুল, আলতাফ হোসেন চৌধুরী বাচ্চু, নগর মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী হাসিনা মহিউদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক চৌধুরী হাসান মাহমুদ হাসনী ও আইন বিষয়ক সম্পাদক শেখ ইফতেখার সায়মুল চৌধুরী।