পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় তরম্নণ-তরম্নণীর মৃত্যু মেহেদী দিয়ে হাত রাঙানো হলো না জারিনের

নিজস্ব প্রতিবেদক

হবু বর জিসানকে নিয়ে পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকতে বেড়াতে গিয়েছিলেন জারিন জাহারা (২০)। তাদের বিয়ে ঠিক হলেও দিনড়্গণ এখনো ঠিক হয়নি। কিন’ হাত মেহেদী দিয়ে রাঙানোর আগেই পৃথিবী থেকে বিদায় নেন জারিন। রোববার রাত সোয়া ১১টার দিকে পতেঙ্গা বোট ক্লাব এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেছেন এ তরম্নণী।
গত রোববার পতেঙ্গা সৈকত থেকে ফেরার পথে রাত সোয়া ১১টার দিকে পতেঙ্গা বোট ক্লাবের সামনে তাদের বহনকারী প্রাইভেট কারটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ডিভাইডারে আছড়ে পড়ে। গুরম্নতর আহত অবস’ায় জারিনকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা জারিনকে মৃত ঘোষণা করেন।
পুলিশ জানায়, নিহত জারিন জাহারা চন্দনাইশ উপজেলার পশ্চিম এলাহীবাদ এলাকার আবুল কাশেমের মেয়ে। জিসান ও জারিনের বিয়ে ঠিক হলেও আনুষ্ঠানিক দিনড়্গণ ঠিক হয়নি। তাদের বাড়ি চান্দগাঁও আবাসিক এলাকার নয় নম্বর রোডের তিন নম্বর বস্নকে।
এদিকে গতকাল সকাল ৮টার দিকে নগরের
বহদ্দারহাট পেপসি গেট এলাকায় চলনত্ম বাস থেকে পড়ে মারা গেছেন মোহাম্মদ সাকিব (১৮) নামের এক তরম্নণ। সাকিব ওই বাসের হেলপার ছিল।
চমেক পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আলাউদ্দিন তালুকদার জানান, কালুরঘাট থেকে আসার সময় চলনত্ম বাস থেকে পড়ে যান সাকিব। গুরম্নতর আহত অবস’ায় চমেক হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। সাকিব শহর এলাকার দুই নম্বর রম্নটের বাসের হেলপার হিসেবে কাজ করতেন। নিহত সাকিব নোয়াখালী জেলার হাতিয়া উপজেলার মো. বেলালের ছেলে।