এডেকোয়েট নিউট্রিশন ফর ওয়ার্কার্স অ্যান্ড কর্পোরেট সোস্যাল রেসপনসিবিলিটি শীর্ষক কর্মশালায় মেয়র

পুষ্টিহীনতা রোধে পুষ্টি চাল খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলতে হবে

বিজ্ঞপ্তি

শনিবার দুপুরে চট্টগ্রাম ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টার কনফারেন্স হলে এডেকোয়েট নিউট্রিশন ফর ওয়ার্কার্স এন্ড কর্পোরেট সোস্যাল রেসপনসিবিলিটি শীর্ষক এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। এই কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপসি’ত ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন। অন্যদের মধ্যে উপসি’ত ছিলেন ওয়ার্ল্ড ফুড প্রোগ্রাম বাংলাদেশের হেড অব প্রোগ্রাম রেজাউল করিম, খাদ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. ওমর ফারম্নক, ওয়ার্ল্ড ফুড প্রোগ্রাম বাংলাদেশের প্রোগ্রাম অফিসার ড. মাহবুবুর রহমান, বিকেএমইএ ভাইস প্রেসিডেন্ট গওহর সিরাজ জামিল, চট্টগ্রাম ওমেন চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির সহ সভাপতি আবিদা মোসত্মফা, বিকেএমইএ ফরমান ডিরেক্টর রাজীব দাশ সুজয় ও শওকত ওসমান প্রমুখ। এ কর্মশালায় পুষ্টি চালের ব্যবহার বাড়ানোর জন্য সংশিস্নষ্ট পোষাক শিল্প মালিক পড়্গ ও সরকারের খাদ্য মন্ত্রণালয়ের মধ্যে নানামুখী আলাপ আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। ওয়ার্ল্ড ফুড প্রোগ্রাম বাংলাদেশের প্রোগ্রাম অফিসার ড. মাহবুবুর রহমান পুষ্টি চালের ভিটামিন ও খনিজ উপাদান সমূহের উপর পাওয়ার পয়েন্টের মাধ্যমে উপস’াপনা করেন। উপস’াপনার মধ্যে দেখা যায় যে, ২০১৩ সাল থেকে বাংলাদেশে পুষ্টি চালের ব্যবহার শুরম্ন হয়। পোষাক শিল্পে কর্মরত মহিলা ও তাদের শিশুদের পুষ্টিহীনতা দূরীকরণে বাংলাদেশ সরকার ও জাতিসংঘের ওয়ার্ল্ড ফুড প্রোগ্রাম এর যৌথ উদ্যোগে প্রকল্পটি বাসত্মবায়িত হচ্ছে। কর্মশালায় উঠে আসে পুষ্টি চালে খাদ্যের ছয়টি অতি প্রয়োজনীয় ভিটামিন ও খনিজ লবন যেমন ভিটামিন এ, ভিটামিন বি ১, ভিটামিন বি ১২, ফলিক এসিড, আয়রন ও জিংক রয়েছে। সাধারণ চালে ১০.১০০ অনুপাতে এসব উপাদান যুক্ত করা হয়। পুষ্টি চাল ব্যবহারকারী নারী ও শিশুদের শ্রমশক্তি উৎপাদন ড়্গমতা অনেকাংশে বৃদ্ধি করে। ১ ডলার মূল্যে পুষ্টি চাল ব্যবহারে পোষাক কর্মীদের ১৬ ডলার মূল্য উৎপাদন সাশ্রয়ী হয়। সিটি মেয়র অপুষ্টি ও পুষ্টিহীনতা রোধে প্রত্যেক পরিবারে পুষ্টি চাল খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলার উপর গুরম্নত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, সুস’ থাকার জন্য পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে প্রতিদিন। প্রয়োজনীয় ক্যালরির জন্য ৬ পুষ্টি উপাদান খুবই গুরম্নত্বপূর্ণ। এগুলো ঠিক মতো না পেলে শরীর এর সঠিক বিকাশ বাধাগ্রস’ হয়। তিনি বলেন, কর্মজীবী মহিলা ও তাদের শিশুদের পুষ্টি বৃদ্ধির লড়্গ্যে বাংলাদেশ সরকার পুষ্টি চাল সরবরাহ কর্মসূচি বাসত্মবায়ন শুরম্ন করেছে। এ সম্পর্কে জনগনের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টির জন্য আমাদের প্রত্যেককে স্ব স্ব অবস’ান থেকে দায়িত্ব পালন করতে হবে তিনি উলেস্নখ করেন।