পুলিশ কর্মকর্তাদের মানবিক হতে বললেন প্রধানমন্ত্রী

সুপ্রভাত ডেস্ক

সেবা ও মানবিক আচরণের মাধ্যমে জনগণের আস’া অর্জনে পুলিশের নবীন কর্মকর্তাদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রাজশাহীর সারদায় পুলিশ একাডেমিতে গতকাল বুধবার ৩৫তম বিসিএস (পুলিশ) ব্যাচের শিক্ষানবিস সহকারী পুলিশ সুপারদের প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজে এ আহ্বান জানান তিনি। খবর বিডিনিউজের।
প্রধানমন্ত্রী তাদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘মানুষ বিপদের সময় পুলিশের কাছেই সাহায্য চায়। তাই একথা মনে রেখে, সেবা ও মানবিক আচরণের মাধ্যমে মানুষের কাছ থেকে আস’া অর্জন করতে হবে, যেটা একান্তভাবে প্রয়োজন।’
দায়িত্ব পালনের সময় জনগণের মৌলিক অধিকার, মানবাধিকার ও আইনের শাসনকে সর্বাধিক জোর দেওয়ার নির্দেশ দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘সমাজের নারী, শিশু ও প্রবীণদের প্রতি সংবেদনশীল আচরণ করতে হবে।’
সমাজ থেকে অপরাধ নির্মূলে জনসম্পৃক্ততা সৃষ্টির মাধ্যমে ‘জনবান্ধব পুলিশ’ গঠনে নবীন এই সদস্যদের অগ্রপথিকের ভূমিকা পালন করার আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী। মাদকের বিরুদ্ধে কঠোর অবস’ান নেওয়ার নির্দেশ দিয়ে তিনি বলেন, ‘সন্ত্রাস দমনে আমরা সাফল্য অর্জন করেছি। কিন’ মাদক একটা ব্যাধির মতো সমাজকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যাচ্ছে, একেকটি পরিবারকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। মাদকের হাত থেকেও এই জাতিকে রক্ষা করত হবে।
‘আমরা চাই, মাদক সেবনকারী, সরবরাহকারী, মাদক ব্যবসায়ী বা উৎপাদনকারী.. যারাই থাক, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস’া নিতে হবে।’
মাদক নির্মূলে নবীন পুলিশ সদস্যদের বিশেষভাবে কাজ করার কথাও বলেন প্রধানমন্ত্রী। ‘জনগণের সঙ্গে পুলিশের একটা সুসম্পর্ক বজায় রাখতে হবে। যেমন, জঙ্গি দমনে সফল হয়েছে, আমার দৃঢ় বিশ্বাস দেশ থেকে মাদক দূর করবার ক্ষেত্রেও আপনারা সাফল্য অর্জন করবেন।’ পুলিশ সদস্যদের জনগণের প্রত্যাশা পূরণের আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘তার জন্য দরকার চৌকস, পেশাদার, দক্ষ ও জনবান্ধব পুলিশ সার্ভিস। আমরা সেটা গঠন করতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞবদ্ধ।’ পুলিশকে আধুনিক প্রযুক্তিতে দক্ষ করাসহ বিভিন্ন প্রশিক্ষণের কথাও তিনি উল্লেখ করেন। পুলিশের সকল প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের উন্নয়ন করা সরকারের সক্রিয় বিবেচনাধীন রয়েছে বলেও জানান প্রধানমন্ত্রী।