কলেজছাত্রী ধর্ষণ

পাঁচ বখাটে তিন দিনের রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাসায় ঢুকে দুই কলেজছাত্রীর একজনকে ধর্ষণ ও আরেকজনকে শ্ল্লীলতাহানির মামলায় পাঁচ বখাটেকে গতকাল সোমবার তিন দিনের রিমান্ডে নেয়ার আদেশ দিয়েছেন চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম আল ইমরান খান। এর আগে তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করেছিল পুলিশ। পাঁচ বখাটে হলেন সাইমুন ইসলাম সাকিব (২২), মো. মহিউদ্দীন (২২), আসিফ ইকবাল (২৫), রাজবির হোসেন নয়ন (২২) ও মোশারফ হোসেন আকাশ (২২)। তবে পলাতক এক আসামিকে এখনও গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ।
নগর পুলিশের সহকারী কমিশনার (প্রসিকিউশন) কাজী শাহাবুদ্দিন আহমেদ জানান, পাঁচ আসামি ডিবি পুলিশের পরিচয় দিয়ে বাসায় ঢুকেন। দুই কলেজছাত্রীকে হত্যার হুমকি দিয়েছেন। তাদের কাছে চাঁদা দাবি করেছেন। বখাটেরা এক কলেজছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে। সেটা ভিডিও করে ফেসবুকে ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিয়েছে। আরেকজন ছাত্রীর শ্লীলতাহানি করেছে। এসব বিষয়ে বিস্তারিত জানতে আসামিদের পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা।
৭ জুলাই নগরের চকবাজার থানার বাদুরতলা জঙ্গি শাহ মাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। গত ১২ জুলাই রাতে ভিকটিম ওই ছাত্রী থানায় মামলা দায়ের করেন।
জানা গেছে, ৭ জুলাই সন্ধ্যার দিকে ছয় বখাটে বাসায় ঢুকে দুই ছাত্রীসহ চারজনকে ফাঁদে ফেলে টাকা হাতিয়ে নেয়ার পরিকল্পনা করে। এসময় তারা দুই পুরুষকে নগ্ন করে তাদের মাঝখানে এক ছাত্রীকে বসিয়ে ছবি তোলে সেটি ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে টাকা দাবি করে। এসময় এক ছাত্রীকে ধর্ষণের জন্য টানাহেঁচড়া করলে তিনি মূর্ছা যান। পরে বখাটেরা আরেক ছাত্রীকে ধর্ষণ করে বাসা থেকে সাড়ে ৭ হাজার টাকা এবং দুই পুরুষের কাছ থেকে দুটি মোবাইল ফোন সেট নিয়ে চলে যায়। এ ঘটনায় ছয় বখাটেকে আসামি করে ভিকটিম চকবাজার থানায় মামলা করলে পুলিশ পাঁচজনকে গ্রেফতার করে। একজন এখনও পলাতক।