পটিয়ায় চেক প্রতারণায় এক ব্যক্তির কারাদণ্ড

নিজস্ব প্রতিনিধি, পটিয়া

চেক প্রতারণা মামলায় পটিয়ায় পৌরসভা আওয়ামী লীগ নেতা মো. খলিলুজ্জামান আমিরী শিবলুকে (৪০) ছয় মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এছাড়া ৭ লাখ টাকার চেকের বিনিময়ে দ্বিগুণ ১৪ লাখ টাকা প্রদানের নির্দেশ দেওয়া হয়। গতকাল দুপুরে পটিয়া যুগ্ম জেলা জজ আদালতের বিচারক মো. জসিম উদ্দীন এ আদেশ দেন।
অতিরিক্ত পিপি ও বাদি সূত্রে জানা গেছে, পটিয়া পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা মো. আলী আকবরের পুত্র সেকান্দর আলী (৪৪) একই এলাকার সিরাজুল হক আমিরীর পুত্র ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি খলিলুজ্জামান আমিরী শিবলুর কাছ থেকে ৭ লাখ টাকা পাওনা ছিল। টাকার বিনিময়ে শিবলু একটি চেক প্রদান করেন। দীর্ঘদিন ওই টাকা পরিশোধ না করায় সেকান্দর প্রথমে পটিয়া পৌরসভার মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদের কাছে যান, পরে মীমাংসা না হলে পটিয়া যুগ্ম জেলা জজ আদালতে ২০১৫ সালের ১৫ নভেম্বর চেক প্রতারণার মামলা করেন। মামলা নিষ্পত্তির শর্তে শিবলু পাওনা টাকার অর্ধেক ৩ লাখ ৫০ হাজার টাকা পরিশোধ করে আপিল করলে তাকে বিকেলে মুক্তি দেওয়া হয়।
এ ব্যাপারে অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট বদিউল আলম বলেন, চেক প্রতারণা মামলায় শিবলু আমিরীর ছয় মাসের কারাদণ্ড হয়েছে। মামলার বাদি সেকান্দরকে ৭ লাখ টাকা প্রদান না করায় মামলায় বিচারক ছয় মাসের কারাদণ্ড ও পাওনা টাকার দ্বিগুণ পরিশোধের আদেশ দেন।