নোমানকে ‘বহিরাগত’ বললেন আত্মবিশ্বাসী আফছারুল

সালাহ উদ্দিন সায়েম

চট্টগ্রাম-১০ (হালিশহর-পাহাড়তলী-খুলশী) আসনে ২০০৮ সালের সংসদ নির্বাচনে বিএনপির হেভিওয়েট প্রার্থী আবদুল্লাহ আল নোমানকে হারিয়ে বিজয়ী হয়েছিলেন নগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ডা. আফছারুল আমীন। ১০ বছর পর একাদশ সংসদ নির্বাচনে আবার ধানের শীষের প্রার্থী নোমানের মুখোমুখি হয়েছেন নৌকার প্রার্থী আফছারুল।
২০০৮ সালের সংসদ নির্বাচনে নোমানকে পরাস্ত করায় এবার অনেক আত্মবিশ্বাস নিয়ে ভোটের মাঠে নেমেছেন আফছারুল আমীন। তাই তো গত কয়েকক দিন ধরে তিনি সংসদীয় এলাকার বিভিন্ন অলি-গলিতে গণসংযোগ করছেন ফুরফুরে মেজাজে!
গতকাল শুক্রবার সকালে রামপুর বৌ বাজার ও ঈদগাহ এলাকায় গণসংযোগের সময় তাঁকে বেশ উৎফুল্ল দেখা যায়। শতাধিক নেতাকর্মীর বহর নিয়ে হাস্যোজ্জ্বল মুখে ভোটারদের ঘরে ঘরে গিয়ে ভোট চেয়েছেন তিনি।
গণসংযোগে থাকা স’ানীয় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, ২০০৮ সালের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী নোমানকে পরাজিত করায় আফছারুল আমীন এবার অনেক আত্মবিশ্বাস নিয়ে ভোটের মাঠে নেমেছেন।
নেতাকর্মীরা বলেছেন, নগর আওয়ামী লীগের দুটি পক্ষের মধ্যে বিরোধ থাকলেও নির্বাচনকে ঘিরে সবাই এক মেরুতে এসে গেছে। তার জন্য নেতাকর্মীরা সবাই একাট্টা হয়ে মাঠে নেমেছেন। সুসংগঠিত কর্মী বাহিনীই ভোটের মাঠে আফছারুল আমীনের বড় শক্তি।
গতকাল শুক্রবার সকালে রামপুর বৌ বাজার এলাকায় আফছারুল আমীন উপসি’ত হলে আশপাশের এলাকা থেকে খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে সেখানে ছুটে আসেন আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের শত শত নেতাকর্মী।
একটি বাড়িতে গণসংযোগকালে আফছারুল আমীন এসব নেতাকর্মীর দিকে তাকিয়ে উপসি’ত সাংবাদিকদের বলেন, ‘নেতাকর্মীদের যে ঢল আপনারা দেখছেন, তারা সবাই স্বতঃস্ফূর্তভাবে এখানে এসেছে আমাকে ভালোবেসে। এসব নেতাকর্মীই ভোটের মাঠে আমার শক্তি।’
আত্মবিশ্বাস নিয়ে ভোটযুদ্ধে নামলেও গণসংযোগে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীকে ‘বহিরাগত’ বলে ঘায়েল করছেন আফছারুল আমীন।
গতাকাল দুপুর ১২টার দিকে ঈদগাহ কাঁচা রাস্তার মোড়ে একটি পথসভায় তিনি প্রতিদ্বন্দ্বী ধানের শীষের প্রার্থী আবদুল্লাহ আল নোমানকে ‘বহিরাগত’ আখ্যায়িত করে বলেন, ‘যিনি ধানের শীষের প্রার্থী তিনি এ এলাকার সন্তান নন, এই এলাকার ভোটারও নন। তিনি আবার এসেছেন চট্টগ্রাম-১০ আসনে ধানের শীষে ভোট চাইতে।’
উপসি’ত নেতাকর্মীদের উদ্দেশে আফছারুল আমীন বলেন, ‘আমি আপনাদের এলাকার ছেলে। মানুষে বলে ঘরের ছেলে। অনেকে বলে বাড়ির ছেলে। সুখে-দুঃখে এই পাড়ার ছেলে, বাড়ির ছেলে আমাকে পাবেন। সেই বহিরাগতকে পাবেন না।’
ঈদগাহ কাঁচা রাস্তার মোড়ে আফছারুল আমীন যখন বক্তব্য রাখছিলেন, তখন সেখান থেকে ১০০ গজ দূরে পিডিবি কলোনি মসজিদে অবস’ান করছিলেন ধানের শীষের প্রার্থী আবদুল্লাহ আল নোমান।
এদিকে গণসংযোগকালে আফছারুল আমীনকে সঙ্গ দিতে ছুটে আসেন নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।
২০০৮ সালের নির্বাচনে এই আসনে ডা. আফছারুল আমীন প্রায় ১০ হাজার ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করেন বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমানকে।