নির্বাচনী প্রচারণায় দুই মেরম্নর আইনজীবীরা

সরকার হাবীব

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনের বাকি আর মাত্র ১৪ দিন। এরই মধ্যে ৬ষ্ঠ দিনের মতো প্রচার প্রচারণা শেষ করেছেন প্রার্থীরা। উৎসবমুখর পরিবেশেই প্রার্থীরা ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে ভোট চাচ্ছেন। এ প্রচার-প্রচারণায় পিছিয়ে নেই চট্টগ্রামের আইনজীবীরা। তারাও সমানে প্রধান দুই মেরম্নর পড়্গে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন।
চট্টগ্রাম আদালতে কাজ করেন বিভিন্ন মতাদর্শের আইনজীবী। রয়েছে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি ও জামায়াতে ইসলামী সমর্থক আইনজীবীরা। তবে আওয়ামী পনি’ ও বিএনপিপনি’র সংখ্যাই বেশি। নির্বাচনে এ দুই দলের পড়্গে কাজ করছেন জামায়াতে ইসলামী এবং জাতীয় পার্টির আইনজীবীরা।
জানা গেছে, আইনজীবীরা আসন্ন নির্বাচনে পৃথক কর্মসূচি হাতে নিয়েছেন। আগামী ২৭ ডিসেম্বর জেলা পরিষদ মিলনায়তনে আলোচনা সভার আয়োজন করেছে আওয়ামী আইনজীবী সমম্বয় পরিষদ। নির্বাচনের দিন করণীয় ঠিক করতেই মুলত এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করেছেন তারা। সেজন্য আওয়ামীপনি’ প্রায় ৫ শত আইনজীবীকে সমন্বয়ের পড়্গ থেকে চিঠিও দেওয়া হয়েছে।
এদিকে নির্বাচন ঘিরে বিভিন্ন ধরনের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য পরিষদও। তারা আগামীকাল সোমবার আদালত চত্বরে আলোচনা সভার আয়োজন করেছে। এ সভা থেকে আসন্ন নির্বাচন নিয়ে তাদের কর্মপরিকল্পনা ঠিক করা হবে।
আদালতসূত্রে জানা গেছে, জেলা আইনজীবী সমিতির হিসেবে চট্টগ্রাম আদালতে কাজ করছেন এমন আইনজীবীর সংখ্যা পাঁচ হাজারেরও উপরে। তারা দেশের রাজনীতির প্রধান দুটি মেরম্নতে বিভক্ত। একটির নেতৃত্বে রয়েছে আওয়ামী আইনজীবী সমম্বয় পরিষদ এবং অন্যটির নেতৃত্বে বিএনপিপনি’ জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য পরিষদ। আসন্ন নির্বাচনে আওয়ামী আইনজীবী সমম্বয় পরিষদ কাজ করছেন নৌকার প্রতীকের পড়্গে অন্যদিকে বিএনপির ধানের শীষ প্রতীকের পড়্গে কাজ করছেন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য পরিষদ।
আওয়ামীপনি’ আইনজীবীসূত্রে জানা গেছে, তারা চট্টগ্রাম নগর এবং আশেপাশের ৬টি আসনে নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। এছাড়া অসংখ্য আইনজীবী চট্টগ্রামের ১৬টি আসনে নৌকার পড়্গে কাজ করছেন। যেখানে আওয়ামী আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের জ্যেষ্ঠ নেতারা নেতৃত্ব দিচ্ছেন। এরই ধারাবাহিকতায় প্রায় প্রতিদিনই বিভিন্ন আসনে নৌকার পড়্গে প্রচারণা চালাচ্ছেন সাবেক বার কাউন্সিলের সদস্য ইব্রাহীম হোসেন চৌধুরী বাবুল, জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী, সহসভাপতি ইয়াছিন খোকন, প্রযুক্তি সম্পাদক রাশেদুল আলম। এছাড়াও নৌকার পড়্গে কাজ করছেন আইনজীবী আর কে আচার্য, টি আর খান, জ্যেষ্ঠ আইনজীবী তপন দাস, রতন কুমার প্রমুখ।
বিএনপিপনি’ আইনজীবীসূত্রে জানা গেছে, তারাও চট্টগ্রাম নগর ও এর আশেপাশের ৬টিসহ চট্টগ্রাম জেলার ১৬টি আসনে ধানের শীষের পড়্গে প্রচারণা চালাচ্ছেন। প্রায় প্রতিদিনই নির্বাচনী প্রচারণায় গিয়ে ধানের শীষ মার্কায় ভোট চাচ্ছেন অনেক জাতীয়তাবাদী আইনজীবী। চট্টগ্রাম নগর ও আশেপাশের ৬টি আসনে আইনজীবী বদরম্নল আনোয়ার, একরামুল করিম, কাজী ফেরদৌস, গাজী আকবর, নাজিম উদ্দিন চৌধুরী এবং আবদুস সাত্তার প্রায় প্রতিদিন নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিচ্ছেন। এছাড়াও জাতীয়তাবাদী অসংখ্য আইনজীবী চট্টগ্রামের ১৬টি আসেন ধানের শীষ মার্কায় ভোট চেয়ে প্রচারণা চালাচ্ছেন।
জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী সুপ্রভাতকে বলেন, আসন্ন নির্বাচনে নৌকা যাতে জয়ী হতে পারেন সেজন্য তারা প্রচারণায় নেমে পড়েছেন। তাদের প্রায় দেড়শত আইনজীবী নগরের ৬টি আসনে নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন। স্বাধীনতার বিপড়্গের শক্তি যাতে ড়্গমতায় ফিরতে না পারেন সেজন্য তারা চেষ্টা চালিয়ে যাবেন।
কোতোয়ালি আসনের বিএনপির প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেনের নির্বাচনী সমন্বয়ক অ্যাডভোকেট বদরম্নল আনোয়ার সুপ্রভাতকে বলেন, গায়েবী মামলায় কারাবন্দি ডা. শাহাদাতের পড়্গে তিনি প্রচারণা চালাচ্ছেন। জাতীয়তাবাদী আইনজীবীরাও আগামী সংসদ নির্বাচন নিয়ে উজ্জীবিত। প্রায় দুই শত আইনজীবী নিয়মিত চট্টগ্রামের ১৬টি আসনে গিয়ে প্রচার প্রচারণা চালাচ্ছেন।