জেলা আইনজীবী সমিতি

নবনির্বাচিত কমিটির দায়িত্ব গ্রহণ

নিজস্ব প্রতিবেদক

চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির নবনির্বাচিত কমিটির হাতে দায়িত্ব হস্তান্তর করেছেন গত কমিটি। এসময় নব নির্বাচিত সভাপতি শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিনসহ ১৯ জন সদস্য এই দায়িত্ব গ্রহণ করেন।
গতকাল আইনজীবী সমিতি ভবনের মিলনায়তনে আইনজীবী সমিতির
সাবেক সভাপতি রতন কুমার রায় ও সাধারণ সম্পাদক আবু হানিফের হাত থেকে নব নির্বাচিতরা দায়িত্ব গহণ করেন। এসময় নির্বাচিত প্রতিনিধিরা ২০১৭ সালের সকল হিসাব নিকাশ সহ যাবতীয় তথ্যাবলী বুঝে নেন। দায়িত্ব হস্তান্তরকালে সমিতির বর্তমান ও সাবেক আইনজীবীরা উপসি’ত ছিলেন।
নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন সুপ্রভাতকে বলেন, দুর্নীতিমুক্ত বার গঠনের জন্য শপথ নিয়ে দায়িত্ব গ্রহণ করেছি। সমিতির সদস্যদের দাবি দাওয়া পালনের সাথে সাথে সাধারণ আইনজীবীদের দাবি-দাওয়া পালনে সমিতি সর্বক্ষণ নিয়োজিত থাকবে।
সদ্য বিদায়ী সভাপতি রতন কুমার রায় বলেন, সমিতির গঠনতন্ত্র পরিবর্তন করে ক্ষমতায় ভারসাম্য আনার প্রত্যাশার কথা বলেছি দায়িত্ব হস্তান্তরকালে। যাতে সাধারণ সম্পাদক স্বেচ্ছাচারী হয়ে না উঠে। রতন কুমার রায় আরও বলেন, নব নির্বাচিতদের সাধারণ আইনজীবীদের সুযোগ সুবিধা নিয়ে ভাবা উচিত। নিজেদের সুবিধা নেওয়ার বিষয়টি এড়িয়ে চলতে হবে।
সমিতির নির্বাচনে সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন সমন্বয় পরিষদের মনোনীত শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক পদে জয়লাভ করেন ঐক্যের নাজিম উদ্দিন চৌধুরী। এছাড়া সিনিয়র সহসভাপতি পদে সমন্বয়ের মোহাম্মদ ছুরত জামাল, সহসভাপতি পদে ঐক্যের মো. নুরুদ্দিন আরিফ চৌধুরী, সহসাধারণ সম্পাদক পদে সমন্বয়ের মোহাম্মদ ইয়াছিন খোকন, অর্থ সম্পাদক পদে ঐক্যের মোহাম্মদ শফিউল হক চৌধুরী সেলিম, পাঠাগার সম্পাদক পদে ঐক্যের মো. নুরুল করিম এরফান, সাংস্কৃতিক ও ক্রীড়া সম্পাদক পদে ঐক্যের হাসনা হেনা, তথ্যপ্রযুক্তি সম্পাদক পদে সমন্বয়ের মো. রাশেদুল আজম রাশেদ জয়ী হয়েছেন।
নির্বাহী সদস্যের ১০টি পদে ঐক্য পরিষদের মো. লোকমান, মোহাম্মদ আলী ইয়াছিন, মুহাম্মদ আকিব চৌধুরী, এইচএস সোহরাওয়ার্দী, মোহাম্মদ এহছানুল হক, মো. এনামুল হক, হাসান কায়েস এবং সমন্বয় পরিষদের ফারহানা রবিউল লিজা, সেলিনা আক্তার ও ইয়াসিন মাহমুদ তানজিল জয়ী হয়েছেন।
১১ ফেব্রুয়ারি জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে চারটি প্যানেল অংশগ্রহণ করে। আওয়ামী সমর্থিত সম্মিলিত আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ এবং জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ঐক্য পরিষদ ছাড়া বাকী দুটি প্যানেলের কেউ নির্বাচনে কোন পদে জয় লাভ করেননি।