নগরে ১০,৭০০ ইয়াবা জব্দ কথিত সাংবাদিক ও রোহিঙ্গা নারীসহ গ্রেফতার ৫

নিজস্ব প্রতিবেদক

চট্টগ্রাম নগরে র্যাব, পুলিশ ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পৃথক অভিযানে তিন নারীসহ পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এর মধ্যে দুজন রোহিঙ্গা নারী, এক দম্পতি এবং কথিত সাংবাদিকও রয়েছেন। র্যাব-৭ এর সহকারী পরিচালক এএসপি মাশুকুর রহমান জানান, রোববার ভোরে এ কে খান গেইট এলাকায় একটি বাসে তলস্নাশি চালিয়ে পাঁচ হাজার ৩০০ পিস ইয়াবাসহ কামাল হোসেন (৩৮) ও তার স্ত্রী যুঁথি বেগমকে (২৫) গ্রেফতার করা হয়। তাদের বাড়ি মাদারিপুর সদর উপজেলার নয়ারচর এলাকায়।
মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের চট্টগ্রাম মেট্রো উপ-অঞ্চলের উপ-পরিচালক শামীম আহমেদ জানান, রোববার ভোরে নগরের স্টেশন রোড ও ফিরিঙ্গী বাজার এলাকা থেকে দুই রোহিঙ্গা নারী ফাতেমা বেগম (৩৭) ও তৈয়বা খাতুনকে (২৪) গ্রেফতার করা হয়। এর মধ্যে স্টেশন রোড এলাকা থেকে ৫০০ ইয়াবাসহ ফাতেমা এবং ফিরিঙ্গী বাজার মেরিনার্স রোড থেকে দুই হাজার ৫০০ ইয়াবাসহ তৈয়বা গ্রেফতার হন। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতার হওয়া এ দুই নারী সংস’াটির কর্মকর্তাদের জানান, তারা টেকনাফ থেকে ইয়াবা এনে চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন জায়গায় সরবরাহ করেন।
বাকলিয়ার ওসি প্রণব চৌধুরী জানান, রোববার ভোরে নগরের শাহ আমানত সেতু এলাকায় কক্সবাজার থেকে চট্টগ্রাম আসা একটি বাসে আসা যাত্রী রেজাউল করিম সরদার ওরফে শানত্ম (৪০) নামে কথিত এক সাংবাদিককে ইয়াবাসহ গ্রেফতার করা হয়। তলস্নাশির আগে বাস থেকে নেমে গেলে আচরণ সন্দেহজনক হওয়ায় শানত্মকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এসময় রেজাউল নিজেকে দৈনিক নতুন সময় পত্রিকার বিশেষ প্রতিনিধি হিসেবে পরিচয় পরিচয় দেন। পরে তার শরীর তলস্নাশি করে হাঁটুর নি-ক্যাপের ভেতর থেকে এক হাজার ৪০০ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। এসময় তার কাছ থেকে দুটি পরিচয়পত্রও পাওয়া গেছে। রেজাউল করিমের বাড়ি মাদারীপুরের কালকিনী উপজেলায়।