নগরীতে মাদকসেবীদের স্থান হবে না : মেয়র

বিজ্ঞপ্তি

জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস ও মাদকের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর জিরো টলারেন্স নীতির কথা উল্লেখ করে মেয়র আ.জ.ম.নাছির উদ্দীন বলেছেন, সরকারে এই নীতি বাস্তবায়নে হালিশহরসহ নগরীর কোথাও মাদক বিক্রেতা, মাদকসেবীদের স’ান হবে না।
তিনি মঙ্গলবার সকালে দক্ষিণ হালিশহরের একটি কমিউনিটি সেন্টারে সন্ত্রাস, জঙ্গি, মাদকবিরোধী ও স’ানীয় জনসাধারণের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন।
স’ানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাজী জিয়াউল হক সুমনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় রাজনীতিক হাজী হারুনুর রশিদ, চসিক আইন শৃংখলা স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান কাউন্সিলর এইচ.এম.সোহেল, স্পেশাল মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্টেট (যুগ্ম জেলা জজ) জাহানারা ফেরদৌস, ইপিজেড থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) ওসমান গনি, চসিক সাবেক কমিশনার মোহাম্মদ আসলাম, সুলতান নাছির উদ্দিন, আবু তাহের, অধ্যক্ষ এহতেশামুুল হক, ওয়াসিম আকরাম, মোহাম্মদ সেলিম, শারমিন পারু সুলতানা এবং সিমেন্ট ক্রসিং জামে মসজিদের খতিব হাজী মোহাম্মদ হারুনুর রশিদ বক্তব্য রাখেন। অনুষ্ঠান সঞ্চলনায় ছিলেন মোহাম্মদ শফিউল আলম।
অনুষ্ঠানে রাজনীতিক, শিক্ষক, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন পেশার লোকজন উপসি’ত ছিলেন।
মেয়র বলেন একটা মানুষকে সর্বনাশের পথে ঠেলে দেয় মাদক। মাদক শুধু একজন মানুষকে নয় একটা পরিবারকে ধবংস করে দেয়। এই প্রসঙ্গে মেয়র বলেন হালিশহর একটি আবাসিক এলাকা। এ এলাকার মাইলের মাথায় একটি মদের দোকান আছে বলে স’ানীয় বাসিন্দারা আমাকে অভিযোগ করেছেন। মাদকের সঙ্গে জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস অঙ্গাঙ্গীভাবে জড়িত। এটা সমাজের জন্য একটি মরণব্যাধি। এই মরণব্যাধি তরুণ সমাজের মন-মানসিকতা ও সমাজকে কুলষিত করে দিচ্ছে। এ থেকে আগামী প্রজন্মকে মুক্ত করতে সবাইকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে মেয়র বলেন মদের উৎস যদি বন্ধ না হয়, তাহলে মাদককে নির্মূল করা অত্যন্ত দুুরুহ ব্যাপার। এই ব্যাপারে নগরবাসীর সার্বিক সহয়োগিতা নিয়ে চট্টগ্রাম নগর থেকে সকল মদের দোকান উচ্ছেদের ঘোষণা দেন মেয়র আ.জ.ম.নাছির উদ্দীন।
অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম সিটি আওটার রোড (ফিডার রোড-১)এর ক্ষতিগ্রস্তদের উচ্ছেদ, ক্ষতিপূরণ ও পুনর্বাসনের দাবিতে এলাকাবাসী মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীনের নিকট স্মারকলিপি প্রদান করেন।