দুর্নীতির মামলায়ও ফাঁসছেন আসলাম চৌধুরী

সুপ্রভাত ডেস্ক

সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্রের অভিযোগে কারাবন্দি বিএনপি নেতা আসলাম চৌধুরীর বিরুদ্ধে একটি ব্যাংকের সোয়া তিন কোটি টাকা আত্মসাতের একটি মামলায় আদালতে অভিযোগপত্র দিতে যাচ্ছে দুর্নীতি দমন কমিশন। খবর বিডিনিউজ’র।
চট্টগ্রামের এই মামলাটির অভিযোগপত্র গতকাল অনুমোদন দেওয়া হয় বলে দুদকের উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য জানিয়েছেন।
বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আসলামের সঙ্গে তার স্ত্রী ও দুই ভাইও এই মামলার আসামি।
প্রণব ভট্টাচার্য্য বলেন, ‘চট্টগ্রামের রাইজিং স্টিল মিলস লিমিটেডের ব্যবস’াপনা পরিচালক আসলাম চৌধুরীসহ চারজনের বিরুদ্ধে অনুমোদন করা অভিযোগপত্র শিগগিরই বিচারিক আদালতে উপস’াপন করা হবে।’
আসলাম চৌধুরীর স্ত্রী জামিলা নাজনিল মাওলা রাইজিং স্টিল মিলস লিমিটেডের চেয়ারম্যান। তার দুই ভাইয়ের মধ্যে আমজাদ হোসেন চৌধুরী প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস’াপনা পরিচালক এবং জসিম উদ্দিন চৌধুরী পরিচালক।
এবি ব্যাংকের আগ্রাবাদ শাখা থেকে অর্থ তুলে আত্মসাতের অভিযোগে গত বছরের ১৬ জুলাই চট্টগ্রামের ডবলমুরিং থানায় ওই চারজনসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন দুদকের উপসহকারী পরিচালক মানিক লাল দাস।
মামলার অন্য দুই আসামি ছিলেন এবি ব্যাংকের সাবেক উপ ব্যবস’াপনা পরিচালক (ডিএমডি, হেড অব ক্রেডিট) বদরুল হক খান এবং এবি ব্যাংকের সাবেক ব্যবস’াপনা পরিচালক (এমডি) এম ফজলুর রহমান।
প্রুব জানান, তদন্তে শুধু চারজনের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতে সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পাওয়ায় অন্য দুই আসামিকে বাদ দেওয়া হয়েছে।
দুদকের উপ-পরিচালক মোশারফ হোসেইন মৃধা ও বাদি মানিক লাল দাস মামলাটি তদন্ত করেন।
এজাহারে বলা হয়, আসলাম চৌধুরীর পারিবারিক মালিকানাধীন রাইজিং স্টিল লিমিটেড পুরাতন জাহাজ কেনার জন্য ২০১১ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে তিনটি ঋণপত্রের (এলাসি) বিপরীতে এবি ব্যাংক চট্টগ্রামের আগ্রাবাদ শাখা থেকে ৩২৫ কোটি ৭৬ লাখ ৩০ হাজার ৯৫৫ টাকা ঋণ নিয়ে তা পরিশোধ করেননি।
বিপুল পরিমাণ ঋণের বিপরীতে প্রতিষ্ঠানটি ১৭ কোটি ৪০ লাখ ৮৮ হাজার টাকা মূল্যের সম্পত্তির দুটি দলিল ও তিনটি চেক জামানত হিসেবে দেয়। আসলাম চৌধুরী নিজেই জামিনদার ছিলেন বলে প্রণব ভট্টাচার্য্য জানান।
ইসরায়েলের ক্ষমতাসীন লিকুদ পাটির সদস্য মেন্দি এন সাফাদির সঙ্গে একটি ছবি গণমাধ্যমে আসার পর তা নিয়ে আলোচনার মধ্যে গত বছরের ১৫ মে ঢাকায় গ্রেফতার হন আসলাম। এরপর তার বিরুদ্ধে সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্রের অভিযোড়ে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা হয়।