দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের বিমান মহড়া শুরু

উত্তর কোরিয়ার হুমকির মুখে এ পর্যন্ত সবচেয়ে বড় যৌথ বিমান মহড়া শুরু করেছে দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র। খবর বিডিনিউজ।
উত্তর কোরিয়ার সবচেয়ে অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার এক সপ্তাহ পর সোমবার বৃহত্তম এ মহড়াটি শুরু করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা।
‘ভিজিল্যান্ট এইস’ নামের বার্ষিক এই মহড়াটি শুক্রবার পর্যন্ত চলবে। মহড়ায় অংশ নেওয়া ২৩০টিরও বেশি আকাশযানের পাশাপাশি ছয়টি এফ-২২ র‌্যাপ্টর স্টিলথ যুদ্ধবিমানও মোতায়েন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওই কর্মকর্তারা। দক্ষিণ কোরিয়ায় মোতায়েন যুক্তরাষ্ট্রের বিমান বাহিনীর এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, মহড়ায় এফ-৩৫ যুদ্ধবিমানসহ সবচেয়ে বেশি সংখ্যক পঞ্চম প্রজন্মের যুদ্ধবিমান অংশ নিচ্ছে। ‘ভিজিল্যান্ট এইসে’ দক্ষিণ কোরীয় সৈন্যদের পাশাপাশি মেরিন ও নৌবাহিনীর সৈন্যসহ যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় ১২ হাজার সৈন্য অংশ নিচ্ছে। এতে অংশ নেওয়া আকাশযানগুলো যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ার আটটি সামরিক ঘাঁটি থেকে আকাশে উড়বে। দক্ষিণ কোরিয়ার গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি সপ্তাহেই মহড়াটিতে বি-১বি ল্যান্সার বোমারু বিমান যোগ দিতে পারে। তবে যুক্তরাষ্ট্রের বিমান বাহিনীর মুখপাত্র প্রকাশিত তথ্য নিশ্চিত করেননি। মহড়া শুরুর আগে এক বিবৃতিতে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনী জানিয়েছে, অভিযানের সক্ষমতা ও প্রস্তুতি বাড়াতে এবং কোরীয় উপদ্বীপের শান্তি ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে এই যৌথ মহড়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে।
অপরদিকে এই মহড়াকে যুদ্ধের উস্কানি অভিহিত করে এর নিন্দা জানিয়েছে উত্তর কোরিয়া।