চোখের সংক্রমণ

থাইল্যান্ড যেতে হতে পারে মোসাদ্দেককে

সুপ্রভাত ক্রীড়া ডেস্ক

চোখের উন্নত চিকিৎসার জন্য শেষ পর্যন্ত থাইল্যান্ড যেতে হতে পারে বাংলাদেশ ক্রিকেটের ব্যাটিং অলরাউন্ডার মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকে। অবশ্য মোসোদ্দেকের চোখের চিকিৎসক বলেছেন আরও দুই সপ্তাহ অপেক্ষা করতে। খবর বাংলানিউজ’র।
তাতে পুরোপুরি ঠিক না হলে তবেই তাকে চিকিৎসার জন্য থাইল্যান্ড পাঠানো হতে পারে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) মেডিকেল বিভাগ।
মোসাদ্দেকের ব্যাপারে মেডিকেল বিভাগ থেকে বলা হয়, ‘ওর বাঁ চোখের কর্নিয়াতে একটি ভাইরাল ইনফেকশন হয়েছে। চিকিৎসক বলেছেন আরও কয়েকটা দিন দেখার জন্য। যদি দেখি খুব বেশি উন্নতি হচ্ছে না তাহলে হয়তো আমরা ওকে বিদেশে পাঠানোর চেষ্টা করবো, সেক্ষেত্রে থাইল্যান্ড প্রস্তাব করবো।’
তারা আরও যোগ করেন, ‘ওর চিকিৎসকেরা বলেছেন সময় লাগবেই, আপনি যে দেশেই নেন। তিন সপ্তাহ হয়ে গেছে আর কয়েকটা দিন অপেক্ষা করবো। তবে এ ধরনের সমস্যায় কোনো কোনো ক্ষেত্রে ৬ মাসও লেগে যায়। কিন্তু ওর উন্নতি হচ্ছে।’
ছয় মাস লেগে গেলে তো মুশকিল। কেননা তাহলে অস্ট্রেলিয়া সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট ও সাউথ আফ্রিকা সফর নিয়েও থাকবে শঙ্কা।
এ প্রসঙ্গে মোসাদ্দেকের কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, ‘তাদের কথা মতো চলছি, বিশ্রাম নিচ্ছি। পরবর্তীতে কি করবো, তা তারাই ঠিক করে দেবেন।’
উল্লেখ্য গেল তিন সপ্তাহ ধরে চোখের সমস্যায় ভুগতে থাকায় অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজের প্রথম টেস্টের জন্য ঘোষিত ১৪ সদস্যের দলে জায়গা পেয়েও মুমিনুল হকের কাছে তা হারাতে হয়েছে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকে। চোখের সমস্যায় আক্রান্ত হয়ে চট্টগ্রামে সাতদিনের কন্ডিশনিং ক্যাম্পে যোগ দিতে পারেননি।
এরপর দল ঢাকায় ফিরলে অনুশীলনে যোগ দেন তিনি। তবে সূর্যের আলোয় অনুশীলনে সমস্যা হওয়ায় এখন বিশ্রাম নিয়ে তার সময় কাটছে।
উল্লেখ্য, মোসাদ্দেকের অসুস্থতার কারণেই টেস্ট দলে জায়গা পায় বাংলাদেশের ‘ব্র্যাডম্রান’ খ্যাত মুমিনুল হক। দল থেকে বাদ যাওয়ার পরদিনই তাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।