নগর আওয়ামী লীগ

তৃণমূলে প্রাণ ফিরছে

সালাহ উদ্দিন সায়েম

চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের ৪৪টি সাংগঠনিক ওয়ার্ড। প্রতিটি ওয়ার্ডের অধীনে আছে তিনটি ইউনিট কমিটি। কিন’ সংগঠনটির এসব ইউনিট কমিটি আছে কাগজ-পত্রে; সাংগঠনিক কোনো কার্যক্রমই নেই।
কোনো ইউনিট কমিটি গঠন হয়েছে ২০ বছর আগে, কোনোটি ১৫ কিংবা ১২ বছর আগে। মেয়াদোত্তীর্ণ অনেক ইউনিট কমিটির সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক মারা গেছেন। কেউবা বার্ধ্যক্যজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে রাজনীতি থেকে অবসর নিয়েছেন। কেউবা ব্যবসা-বাণিজ্যে জড়িয়ে পড়েছেন।
শুধু ইউনিট কমিটি নয়, ওয়ার্ড কমিটিতেও ঘুনে ধরেছে। ৮ কিংবা ২০ বছর আগে গঠিত হয়েছে অনেক ওয়ার্ড কমিটি। এসব ইউনিট-ওয়ার্ড কমিটি অবশেষে পরিচর্যার উদ্যোগ নিয়েছে নগর আওয়ামী লীগ।
তৃণমূলে প্রাণের সঞ্চার করতে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন।
তিনি গতকাল সুপ্রভাতকে বলেন, ‘সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব ভাইকে সাথে নিয়ে আমি সংগঠনের তৃণমূলে প্রাণ ফিরিয়ে আনতে চাই। ইউনিট-ওয়ার্ড কমিটি করলে বিপর্যস্ত তৃণমূল প্রাণ ফিরে পাবে।’
ইউনিট-ওয়ার্ড সম্মেলন আয়োজনের আগে প্রতিটি ওয়ার্ডে পুরাতন সদস্য নবায়ন ও নতুন সদস্য সংগ্রহ কর্মসূচি আবার শুরু করেছে নগর আওয়ামী লীগ। গতকাল সোমবার নগরীর লালখান বাজার ও সরাইপাড়া ওয়ার্ডে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেছেন নগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন। গত বছরের ৪ মে থেকে এ কর্মসূচি শুরু করা হয়। একাদশ সংসদ নির্বাচনের পর ওয়ার্ডে-ওয়ার্ডে আবার এ কর্মসূচি শুরু করেছে নগর আওয়ামী লীগ।
নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন সুপ্রভাতকে বলেন, ‘এ কর্মসূচির মাধ্যমে তৃণমূল নেতাকর্মীদের মধ্যে একদিকে উৎসাহ-উদ্দীপনা বিরাজ করছে, অন্যদিকে ঐক্যের সুবাতাশ বইছে। যদিও আমাদের মধ্যে ঐক্য নিয়ে মানুষের মধ্যে একটা বিভ্রান্তি ছড়িয়েছে। কিন’ আমরা সবাই ঐক্যবদ্ধ আছি।’
নগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিক আদনান সুপ্রভাতকে বলেন, ‘ইউনিট-ওয়ার্ড কমিটি সফলভাবে করতে পারলে নগর আওয়ামী লীগের জন্য এটা মাইলফলক হয়ে থাকবে।’
নগরীর থানা ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের দায়িত্বশীল নেতারা জানিয়েছেন, ইউনিট কমিটি না থাকায় ওয়ার্ডের সাংগঠনিক কর্মকাণ্ড ঝিমিয়ে আছে। নেতাকর্মীরা সবাই ছন্নছাড়া। ইউনিট-ওয়ার্ড কমিটি গঠন হলে সংগঠন উজ্জীবিত হবে।
পাহাড়তলী থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আবছার মিয়া সুপ্রভাতকে বলেন, ‘তৃণমূলের অবস’া খুবই করুণ। দল ক্ষমতায় থাকাকালে যদি সংগঠনের পরিচর্যা করা না যায় তাহলে ভবিষ্যতের জন্য তা খারাপ হবে।’
নগরীর কোতোয়ালী থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল মনসুর সুপ্রভাতকে বলেন, ‘ইউনিট সম্মেলনকে ঘিরে নেতাকর্মীদের মধ্যে আগ্রহ ও উৎসাহ-উদ্দীপনা বিরাজ করছে। আশা করছি, সম্মেলন হলে তৃণমূল চাঙ্গা হবে।’
গতকাল লালখান বাজার ওয়ার্ডে সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কর্মসূচিতে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিদ্দিক আলম বলেন, সংগঠনের প্রাণ হলো তৃণমূল। তৃণমূলকে বাঁচিয়ে রাখতে হলে তাদের মূল্যায়ন করতে হবে।
দলীয় সূত্রে জানা গেছে, মরহুম এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী ও মরহুম ইনামুল হক দানু নগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বপালনকালে ২৬টি ওয়ার্ড ও ওয়ার্ডের ইউনিট কমিটি গঠন হয়েছিল। এরআগে নগর আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মরহুম এম এ মান্নান দায়িত্বপালনকালে অনেক ওয়ার্ডের কমিটি গঠন হয়। সেই কমিটিগুলোর নেতারা এখনো দায়িত্ব পালন করছেন।