চট্টগ্রাম ডেন্টাল অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় ফরিদ মাহমুদ

ডিপ্লোমাধারী দন্ত চিকিৎসকদের স্বীকৃতি প্রদানের দাবি

বিজ্ঞপ্তি

‘বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে দেশের স্বাস’্যসেবার মানোন্নয়ন হওয়ার পাশাপাশি দেশের সব মানুষ এখন স্বাস’্যসেবা পাওয়ার অধিকার ফিরে পেয়েছে। স্বাস’্যসেবার আমূল পরিবর্তন এসেছে দেশে। শহরের মানুষ যেভাবে স্বাস’্যসেবার সুযোগ পাচ্ছে, তেমনি গ্রামীণ জনপদের মানুষগুলোও সমান সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত স্বাস’্যসেবার সুযোগ পাচ্ছে। এর পেছনে ডিগ্রিধারী প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত চিকিৎসকদের যেমন ভূমিকা রয়েছে তেমনি ভূমিকা রেেয়ছে ডিপ্লোমাধারী প্রাথমিক চিকিৎসকদেরও। এদের অবদান খাটো করে দেখার কোন সুযোগ নেই। দেশের দুই লাখের অধিক প্রাথমিক দন্ত চিকিৎসকদের উন্নত প্রশিক্ষণ প্রদান পূর্বক প্রাথমিক দন্ত চিকিৎসক স্বীকৃতি প্রদান এখন সময়ের দাবি।’ বৃহত্তর চট্টগ্রাম ডেন্টাল এসোসিয়েশনের তৃতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক ফরিদ মাহমুদ উপরোক্ত মন্তব্য করেন। ডেন্টাল এসোসিয়েশনের তৃতীয় প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও স’াস’্য বিষয়ক সেমিনার ও পুরুস্কার বিতরণী গতকাল সকাল ১০টায় নগরীর জেলাপরিষদ মিলনায়তনে সংগঠনের সভাপতি মোহাম্মদ জামাল উদ্দীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। বর্ণাঢ্য এ বর্ষপূর্তির অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপসি’ত ছিলেন সাবেক অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার মুক্তিযোদ্ধা জাহাঙ্গীর আলম চৌ., বিজয়-৭১ এর সভাপতি নাট্যজন সজল চৌধুরী, বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চারনেতা স্মৃতি পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মো. আবদুর রহিম, ডিজিটাল বাংলাদেশ পাবলিসিটি কাউন্সিলেরর সিনিয়র সহ সভাপতি জসিম উদ্দিন চৌ., সাংবাদিক ও সংগঠক স ম জিয়াউর রহমান প্রমুখ। সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ফরিদ মাহমুদ আরো বলেন, পৃথিবীর কোন দেশে বিকল্প কর্মসংস’ান সৃষ্টি না করে চলমান কর্মসংস’ান বন্ধ করার নিয়ম নেই। কারণ ব্যক্তির কর্মসংস’ানের উপর নির্ভর করে মানসম্মান ও জীবন-জীবিকা। তাই ডিপ্লোমাধারী দন্ত চিকিৎসকদেরকে উন্নত ও যুগোপযোগী প্রশিক্ষণ প্রদান পূর্বক প্রাথমিক চিকিৎসকদের স্বীকৃতি প্রদান করে দেশের চিকিৎসা সেবার উন্নয়নে তাদেরও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখার সৃষ্টি করে দিতে হবে। অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, গ্রামীণ স্বাস’্যসেবার মানোন্নয়নে গ্রামীণ দন্ত চিকিৎসকদের ভূমিকা অপরিহার্য। বর্তমান সরকার স্বাস’্যসেবার উন্নয়নে ও চিকিৎসা ব্যবস’ার আধুনিকায়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। সরকারের স্বাস’্যসেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে গ্রামীণ চিকিৎসকদের ভূমিকা অনস্বীকার্য। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদ অভিজিৎ দে রিপনের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন, সংগঠক এ কে এম আবু ইউসুপ, লায়ন ডা. আরকে রুবেল, মুক্তিযোদ্ধা লিয়াকত হোসেন, রতন দাশ গুপ্ত, কবি সজল দাশ, মিনহাজ উদ্দীন, নাছির উদ্দীন, সাজিব বড়ুয়া সাজু, মনির আজাদ প্রমুখ।