সুধী সমাবেশে খলিলুর রহমান

ডায়াবেটিক হাসপাতালের উন্নয়নে কাজ করতে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক
Untitled-1

চট্টগ্রাম ডায়াবেটিক হাসপাতালের উন্নয়নে সকলকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন কেডিএস গ্রুপের চেয়ারম্যান খলিলুর রহমান।
বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস উপলক্ষে গতকাল মঙ্গলবার চট্টগ্রাম ডায়াবেটিক জেনারেল হাসপাতালে আয়োজিত সুধী সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।
চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন চেম্বারের সভাপতি খলিলুর রহমান ডায়াবেটিক হাসপাতালের জন্য একটি অ্যাম্বুলেন্সসহ স্থায়ী একটি ইউনিট স্থাপন করার আশ্বাস দিয়ে বলেন, ‘ডায়াবেটিস যেহেতু সারা জীবনের রোগ সেহেতু সকলকে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রেখে সুস্থভাবে চলার জন্য নিয়মিত ডায়াবেটিস পরীক্ষা করতে হবে। সাম্প্রতিক সময়ে গর্ভকালীন ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বেড়ে গেছে। তাই গর্ভবতী মহিলাদের জন্য ডায়াবেটিক হাসপাতাল যে উদ্যোগ গ্রহণ করেছে তা অত্যন্ত প্রশংসনীয়।’
সমাবেশে স্বাগত বক্তব্যে সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাহাঙ্গীর চৌধুরী বলেন, এবার ডায়াবেটিস দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয় হলো ‘সকল গর্ভধারণ হোক পরিকল্পিত’। এ প্রতিপাদ্য থেকে এটা স্পষ্ট যে নারীদের ডায়াবেটিসের ওপর এবার বিশেষভাবে জোর দেওয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য, এ বছর আন্তর্জাতিক ডায়াবেটিস ফেডারেশন যখন নারীদের গর্ভকালীন ডায়াবেটিসের ওপর গুরুত্ব আরোপ করতে যাচ্ছে, তার আগেই বাংলাদেশ ডায়াবেটিক সমিতি গর্ভকালীন ডায়াবেটিস প্রতিরোধে গর্ভধারণ পূর্ব সেবা দিতে বিশেষ প্রকল্প হাতে নিয়েছে। এরই মধ্যে সারা দেশে ’গর্ভধারণ-পূর্ব সেবা-কেন্দ্র’ খোলা হয়েছে যেখানে নির্ধারিত সময়ে বিনামূল্যে ’গর্ভধারণ-পূর্ব পরামর্শ’ এবং স্বল্পমূল্যে গর্ভধারণ সংক্রান্ত সেবা পাওয়া যাবে। চট্টগ্রাম ডায়াবেটিক জেনারেল হাসপাতালেও এই সেবা পাওয়া যাচ্ছে। এর মাধ্যমে প্রয়োজনীয় সচেতনতা সৃষ্টির পাশাপাশি প্রসবকালীন নারী ও শিশুমৃত্যুর হার যেমন কমানো সম্ভব হবে, তেমনি নারীসহ আগামী প্রজন্মকেও ডায়াবেটিসের ভয়াবহ প্রকোপ থেকে অনেকাংশে রক্ষা করা সম্ভব হবে।’
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. আজিজুর রহমান সিদ্দিকী বলেন, ডায়াবেটিস আছে এমন গর্ভবতী মায়েদের নিরাপদ প্রসবের জন্য ডায়াবেটিস প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত চিকিৎসকদের মাধ্যমে হাসপাতালে প্রসবের ব্যবস্থা করা উচিত। পুরো গর্ভকালীন সময়ে অভিজ্ঞ পুষ্টিবিদের পরামর্শ অনুসারে খাদ্য তালিকা মেনে চলা আবশ্যক। যেহেতু গর্ভাবস্থায় ঘন ঘন ক্ষুধা থাকে, তাই দিনের খাবার ৫-৬ বারে ভাগ করে খেতে হবে। ’
সমিতির কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ শাহাবুদ্দিন এর পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন কিডনী ফাউন্ডেশনের সভাপতি ডা. মঈনুল ইসলাম মাহমুদ, মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল আলম চৌধুরী, সমিতির যুগ্ম সম্পাদক মো. শাহনেওয়াজ, ইঞ্জিনিয়ার জাবেদ আবছার চৌধুরী, নির্বাহী সদস্য আলহাজ এস,এম জাফর, মো. রাকিবুল ইসলাম, অ্যাডভোকেট জয়শান্ত বিকাশ বড়ুয়া, প্রিন্সিপাল লায়ন মো. সানাউল্লাহ, অ্যাডভোকেট মো. আকতার হোসেন, মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, সৈয়দ মোর্শেদ হোসেন, হাসান মুরাদ ও পুষ্টিবিদ হাসিনা আকতার লিপি।
সভার সভাপতি এস এম শওকত হোসেন বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবসের বাণী সমাজের বিভিন্ন প্রচার মাধ্যমে ব্যাপকভাবে প্রচারের আহ্বান জানান।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথিকে সমিতির মনোগ্রাম খচিত ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।