টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌরুটে শুরু হলো জাহাজ চলাচল

নিজস্ব প্রতিনিধি, টেকনাফ
Teknaf-(1)

পর্যটন মৌসুমের প্রায় দেড় মাস ইতোমধ্যে পার হলেও নানা জটিলতার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে পর্যটকদের নিয়ে সেন্টমার্টিন যাত্রা করেছে কেয়ারি সিন্দাবাদ। আর এরই মাধ্যমে জাহাজ চলাচল শুরু হলো টেকনাফ-সেন্টমার্টিন নৌরুটে।
গতকাল সোমবার সকাল ১০টার দিকে টেকনাফ দমদমিয়াস’ কেয়ারি ট্যুর ট্রাভেলসের জেটি থেকে ২৯৪ জন পর্যটক, প্রায় একশজন সেন্টমার্টিনের বাসিন্দা এবং জাহাজের কর্মচারীদের নিয়ে প্রথম নৌজাহাজ হিসেবে যাত্রা শুরু করে কেয়ারি সিন্দাবাদ। যাত্রা শুরুর আগে ক্যাপ্টেন দেলোয়ার হোসাইন সবাইকে স্বাগত জানান।
প্রথম সফরে পর্যটকদের সাথে ছিলেন- সেন্টমার্টিন ইউপির চেয়ারম্যান নুর আহমদ, টেকনাফ কেয়ারি ট্যুর ট্রাভেলসের ম্যানেজার মো. শাহ আলম, সেলস কো-অর্ডিনেটর আজিজুর রহমান, কাস্টমার সার্ভিস অফিসার আব্দুল মোক্তাদির সুমন, সেন্টমার্টিন ইনচার্জ নুরুল মোস্তফা প্রমুখ।
এসময় বিআইডব্লিউটি প্রতিনিধি দল জাহাজ ঘাটও পরিদর্শন করেন। দুপুর ১২টায় পর্যটক বোঝাই কেয়ারি সিন্দাবাদ নিরাপদে সেন্টমার্টিন জেটিঘাটে পৌঁছেন। এসময় দ্বীপের লোকজনও পর্যটকদের স্বাগত জানান।
এ ব্যাপারে সেন্টমার্টিন ইউপি চেয়ারম্যান নুর আহমদ বলেন, ‘পর্যটন জাহাজ চালু হওয়ায় বেকার হয়ে পড়া এলাকাবাসীর কর্মসংস’ান সৃষ্টি হবে। তাই আমরা দ্বীপবাসী আনন্দিত।’
ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মুজিবুর রহমান জানান, ‘দীর্ঘদিন পর হলেও সেন্টমার্টিনে পর্যটন জাহাজ চালু হওয়ায় এলাকাবাসী আনন্দিত। এই ইউনিয়নের মানুষের জীবিকায়নের কার্যক্রম শুরু হওয়ায় সংশ্লিষ্টদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’
কেয়ারি ট্যুরের সেন্টমার্টিন ইনচার্জ নুরুল মোস্তফা জানান, বিকাল ৩টা ১০মিনিটে সেন্টমার্টিন ভ্রমণে আসা পর্যটকরা টেকনাফের উদ্দেশ্যে নিরাপদে যাত্রা করেছেন।
কেয়ারি ট্যুরসের ম্যানেজার শাহ আলম বলেন, ‘আল্লাহর অশেষ রহমতে অনেক বাধা কাটিয়ে আমরা এই পর্যটন মৌসুমে পর্যটকদের প্রথমে দ্বীপে আনতে পেরে খুবই আনন্দিত। আগামীতেও পর্যটকদের জন্য আমাদের এই প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।’
এদিকে, দীর্ঘদিন পর এই প্রবাল দ্বীপে পর্যটকদের পদচারণায় এবং স’ানীয়দের উল্লাসে উৎসবমুখর পরিবেশ সৃষ্টি হয়েছে বলে জানা গেছে।